ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করেন? যে বিষয়গুলো খেয়াল রাখবেন

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১:২৩ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৮ | আপডেট: ১:২৩:পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৮

কেনাকাটা এখন অনেকটা ক্রেডিট কার্ড নির্ভর হয়ে যাচ্ছে। সারা বছরের সঞ্চয়ে হাত না দিয়ে ক্রেডিট কার্ডে কিনে একটু একটু করে মাসে মাসে শোধ করে দেওয়ার অঙ্কে অনেকেই স্বস্তি পান।

মধ্যবিত্তের কাছে তাই ক্রেডিট কার্ড অনেক সমস্যার সমাধান। যে কোনও ধরনের খরচের ক্ষেত্রেই ক্রেডিট কার্ড কাজে লাগান অনেকেই। কিন্তু ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের সময়ও যে ডেবিট কার্ডের মতোই কিছু সাবধানতা অবলম্বন করতে হয়, তা জানেন কি?

অনেকেই ক্রেডিট কার্ডে টাকা পড়ে থাকে না বলে এর সুরক্ষার বিষয়ে অতটা যত্নশীল হন না। কিন্তু ভুলে যান এর গোপনীয়তা রক্ষা না করলে কিন্তু অন্য কেউ এই কার্ড ব্যবহার করে আপনাকে দেউলিয়া করে দিতে পারেন। দেখে নিন ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের সময় কী কী নিয়ম মানা উচিত।

১. ডেবিট কার্ডের মতোই এর সব তথ্যই একান্ত ব্যক্তিগত। এর পিন, সিভিভি, কার্ডের নম্বর গোপন রাখুন। খুব ঘনিষ্ঠ কারও সঙ্গেও ভাগ করার আগেও দু’বার ভাবুন।

২. যে নেটওয়ার্কের সুরক্ষা বলয় নিম্নমানের, সেখানে কার্ড ব্যবহার হতে নিরস্ত থাকুন। অনেক সময় রেস্তরাঁ বা দোকানে বিল মেটাতে গেলে আমরা জনসমক্ষেই পিন নম্বর দিই। তা দেওয়ার আগে সতর্ক হন, দেখে নিন চারপাশে কেউ আপনাকে লক্ষ্য করছেন কি না।

৩. ডেবিট কার্ডের মতোই সহজলভ্য ও শেয়ার করা হয় এমন কোনও নেটওয়ার্কে কার্ড ব্যবহার করবেন না। সাইবার কাফেতে কার্ড ব্যবহারের অভ্যাস থাকলে সে অভ্যাসে রাশ টানুন। যেখানে আপনার ব্যবহার করা কম্পিউটার বা ল্যাপটপ সহজেই বাইরের কারও হাতে পড়বে, এমন মেশিন থেকে কার্ড ব্যবহারের আগে সতর্ক হন।

৪. বাইরের কেউ, এমনকি, ব্যাঙ্ক থেকে ফোন করে কার্ড সম্পর্কে কোন তথ্য চাইলেও তা দেবেন না। দরকারে সেই নম্বর জানিয়ে পুলিশে অভিযোগ করুন।

৫. কোন সংস্থার ক্রেডিট কার্ড নিচ্ছেন তা দেখে, তাদের খুঁটিনাটি নানা নিয়ম আগে জানুন। আপনার কার্ডটির জন্য সংস্থার তরফে বিশেষ কোনও সুরক্ষা আছে কি না জানুন। অনেক সময় ব্যাঙ্কগুলি বেশ কিছু কার্ডকে সুরক্ষা বলয় দেয়। তেমন সুরক্ষিত কার্ড না হলে সে কার্ড গ্রহণ না করাই ভাল।

৬. ওয়াইফাই জোন পেয়ে নেট বাঁচাতে সেখানেই দরকারি ট্রানজাকশন সারেন? এ অভ্যাস সরান। এই ধরনের নেটওয়ার্কের সুরক্ষা বলয় খুব একটা মজবুত হয় না। ফলে এখান থেকে কার্ড নকল করা বা হ্যাক করা সহজ হয়। আনন্দবাজার