ক্লাবের জার্সিতে মসজিদের ছবি, আপত্তি জানানোয় সমর্থককে বিদায়

টিবিটি টিবিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:০০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৩, ২০২০ | আপডেট: ৭:০০:অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৩, ২০২০

ক্লাবের নতুন জার্সির এক কোণে আলোচিত এক মসজিদের ছবি পছন্দ না হওয়ায় ক্লাবের সদস্য না থাকার ঘোষণা দিয়েছিলেন এক সমর্থক। তাকে সানন্দে বিদায় জানিয়েছে জার্মানির ফুটবল ক্লাব এফসি কোলন।

বুন্দেসলিগার এই ক্লাব মাঠের সাফল্যের কারণে খবরে আসে না অনেক বছর হলো। মাত্র দু’বারের বুন্দেসলিগা চ্যাম্পিয়নরা সর্বশেষ সাফল্যটি পেয়েছিল ৪২ বছর আগে। রানার্সআপ হওয়ার আনন্দও ৩০ বছর আগের। সেই ক্লাব এই করোনাকালেও সংবাদ শিরোনামে!

নিজেদের নতুন জার্সির ছবি টুইটারে পোস্ট করেছিল এফসি কোলন। তা দেখে এক সমর্থক মহাক্ষুব্ধ। ক্ষোভের কারণ মসজিদের ছবি। ক্ষুব্ধ সমর্থক জানিয়ে দেন, তিনি মনে করেন এর মাধ্যমে একটি ফুটবল ক্লাব নিজেকে ‘ধর্মীয় সংগঠন’ হিসেবে তুলে ধরেছে এবং ‘মুসলমান এবং মসজিদের সঙ্গে’ এই ক্লাবকে তিনি মেলাতে পারেন না, সুতরাং আর তিনি ক্লাবের সদস্য থাকতে চান না।

আর সব ক্লাবের মতো এফসি কোলনের কাছেও সমর্থকদের গুরুত্ব অনেক। তবে এ ক্ষেত্রে উগ্রতারবিরুদ্ধে অবস্থান নেয়া আবশ্যক ভেবে জার্মানির পশ্চিমাঞ্চলের নর্থ রাইন ওয়েস্টফালিয়া রাজ্যের ক্লাবটি জানিয়ে দিয়েছে, কোলন শহরকে তুলে ধরতে গেলে মসজিদটির ছবি রাখতেই হবে, সুতরাং মাননীয় সমর্থককে বিদায় জানানোতেই তাদের আনন্দ।

জার্সিতে মসজিদের পাশাপাশি কোলন ক্যাথেড্রাল, রাইন নদীসহ শহরের আরো কিছু দর্শনীয় স্থানের ছবিও স্থান পেয়েছে। তাই কোলনের ক্লাব হিসেবে শহরের সব ধর্ম, সংস্কৃতির মানুষকে সঙ্গে নিয়ে চলার মানসিকতা ধরে রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করে ওই সমর্থককে টুইটারে ‘গুডবাই’ বলেছে এফসি কোলন।

জার্সিতে স্থান পাওয়া মসজিদটি জার্মানিতে খুব আলোচিত। তুরস্ক সরকার এবং জার্মানিতে তুর্কি মুসলমানদের ধর্মীয় সংগঠন ডিআইটিআইবি’র অর্থায়নে নির্মিত এই মসজিদটির উদ্বোধন হয় ২০১৮ সালে। আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছিলেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেচেপ তাইয়িপ এর্দোয়ান।

তবে এই মসজিদের ছবি রাখার বিষয়ে এফসি কোলনের যুক্তিটা খুব স্পষ্ট। টুইটারে ক্লাবের পক্ষ থেকে লেখা হয়েছে, ‘‘এই মসজিদ আসলে কোলনে বসবাসরত বিশাল তুর্কি কমিউনিটির প্রতীক, তাদের অনেকেই এফসি কোলনের অন্ধ ভক্ত।”