খালেদার বিকল্প জোবাইদা!

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:৫৭ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৮ | আপডেট: ১১:৫৭:পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৮

সমালোচিত দশম সংসদ নির্বাচনের মেয়াদ শেষ পর্যায়ে, দরজায় কড়া নাড়ছে একাদশ জাতীয় নির্বাচন। এরই মধ্যে নির্বাচন কমিশন জানিয়ে দিয়েছে, আসছে অক্টোবরেই তারা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করবে। সে হিসাবে আর দেড়-দুই মাসের মধ্যেই স্পষ্ট হয়ে যাবে নির্বাচনি পরিস্থিতি।

নির্বাচনে কোন কোন রাজনৈতিক দল প্রার্থী হবে, হলে কিভাবে হবে, সব দলের অংশ নেয়ার মতো পরিস্থিতি থাকবে কি না সেসবই স্পষ্ট হয়ে যাবে এই সময়ের মধ্যে।

এদিকে, দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে কারামুক্ত করার পাশাপাশি আগামী নির্বাচনের প্রস্তুতিও নিচ্ছে বিএনপি। বগুড়া-৬ (সদর) আসনটি শহীদ রাষ্ট্রপতি ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়া পরিবারের জন্য সংরক্ষিত আসন হিসেবে পরিচিত দলের নেতা-কর্মীদের কাছে। ১৯৯১ থেকে ২০০৮ পর্যন্ত টানা চারবার এখানে সাংসদ হয়েছেন দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

তবে দুর্নীতির মামলায় সাজা হওয়ায় খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের প্রার্থিতা নিয়ে সংশয় রয়েছে। সে ক্ষেত্রে বিএনপির নেতা-কর্মীরা চাইছেন, তারেকের স্ত্রী জোবাইদা রহমান কিংবা জিয়া পরিবারের অন্য কেউ এখানে প্রার্থী হোন।

এদিকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন দৌড়ে রয়েছেন অর্ধডজনের বেশি নেতা। তবে তাঁদের সামনে বড় বাধা জাতীয় পার্টি (জাপা)। গত নির্বাচনে আওয়ামী লীগ আসনটি জাপাকে ছেড়ে দিয়েছিল।

বগুড়ায় বিএনপিতে প্রার্থী কে?

১৯৭৯ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত সব কটি জাতীয় নির্বাচনে বগুড়া-৬ আসনে জিতেছে বিএনপি। এর মধ্যে ১৯৯১ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত চারবার সাংসদ হয়েছেন খালেদা জিয়া। পরে তিনি আসনটি ছেড়ে দিলে উপনির্বাচনে অন্যরা জয়ী হন।

২০০৮ সালের নির্বাচনে খালেদা জিয়া মোট ভোটের ৭১ শতাংশ পেয়ে জয়ী হন। ২০০১ সালের নির্বাচনে পেয়েছিলেন ২ লাখ ২৭ হাজার ৩৫০ ভোট, যা মোট ভোটের ৭৮ শতাংশ।

স্থানীয় বিএনপির নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, খালেদা জিয়া বা তার ছেলে তারেক রহমানই আগামী নির্বাচনে এই আসনে প্রার্থী হবেন বলে তাদের প্রত্যাশা। আইনগত কারণে শেষ পর্যন্ত তারা প্রার্থী হতে না পারলে তারাই ঠিক করবেন বিকল্প প্রার্থী কে হবেন। তবে নেতা-কর্মীরা জিয়া পরিবারের বিকল্প হিসেবে অন্য কাউকে ভাবছেন না। খালেদা বা তারেকের বিকল্প প্রয়োজন হলে এখানে তারেকের স্ত্রী জোবাইদা রহমান প্রার্থী হবেন।

এ ব্যাপারে বগুড়া জেলা বিএনপির সহসভাপতি আলী আজগর তালুকদার বলেন, তারা এখনো আশাবাদী, খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে ছাড়া দেশে কোনো নির্বাচন হবে না। তবে শেষ পর্যন্ত তাদের নির্বাচনের বাইরে রাখার সরকারি কূটকৌশল যদি সফল হয়ই, তবে তারা তারেকপত্নী জোবাইদা রহমানকে প্রার্থী হিসেবে দেখতে চান।

এদিকে আসছে ডিসেম্বরে জাতীয় নির্বাচনের প্রস্তুতি নিয়ে এগোচ্ছে নির্বাচন কমিশন। সে লক্ষ্যে নভেম্বরে তফশিল ঘোষণা করতে নিজেদের ৮০ ভাগ প্রস্তুতি শেষ করেছে সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানটি।

আর এই নির্বাচন কেন্দ্র করে মাঠ নিজেদের দখলে রাখতে ও ভোটের মাঠে নিজেদের সক্ষমতা জানান দিতে সেপ্টেম্বরকেই বেছে নিচ্ছে রাজনীতির সবপক্ষ। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ চায়, জনগণের মন কেড়ে নিজেদের ক্ষমতা ধরে রাখতে। বিএনপিসহ বিকল্প একাধিক জোট চায় ক্ষমতার পলাবদল।