‘খালেদা জিয়াকে দেখলে কান্নায় বুক ফেটে যায়’

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:০৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৯, ২০১৮ | আপডেট: ৯:০৪:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৯, ২০১৮

কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে যেখানে রাখা হয়েছে দেখলে কান্নায় বুক ফেটে যায়।

আজ শুক্রবার বিকালে রাজশাহীর মাদ্রাসা মাঠে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বিভাগীয় জনসভায় একথা বলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, বেগম জিয়াকে হাসপাতাল থেকে কারাগারে নেয়ার খবর পেয়ে আমি দৌড়ে যাই সেখানে। বর্তমানে ১০ ফুট বাই ২০ ফুট ঘরের অভ্যন্তরে খালেদা জিয়ার বিচার করা হচ্ছে। এটা অমানবিক। দেখে কান্নায় বুক ফেটে যায়। আমি কান্না ধরে রাখতে পারিনি।

গণতান্ত্রিক লড়াইয়ে খালেদা জিয়ার অবদান প্রসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব বলেন, তিনি এমন একজন নারী যিনি গণতন্ত্রের জন্য স্বামী হারিয়েছেন। এরশাদবিরোধী আন্দোলনে তিনি সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করেছেন। বড় ছেলে তারেক রহমান নির্বাসিত।

Add Image

SPONSORED

 

মির্জা ফখরুল বলেন, দেশনেত্রী খালেদা জিয়া অত্যন্ত অসুস্থ। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাসপাতালের চিকিৎসকরা বলেছেন এখানে তাকে আরও চিকিৎসা দিতে হবে। কিন্তু সরকার জোর করে খালেদা জিয়াকে হাসপাতাল থেকে কারাগারে নিয়েছে।

তিনি বলেন, তাকে (খালেদা জিয়া) হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা সম্পন্ন না করে জোর করে আবার কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর মাধ্যমে কারাভ্যন্তরে রেখে তাকে তিলে তিলে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে সরকার।

এর আগে দুপুর ২টায় পবিত্র কোরআন তিলাওয়াতের মাধ্যমে জনসভা শুরু হয়। শারীরিক অসুস্থতার কারণে জনসভায় যোগ দিতে পারেননি জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ও গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন। তবে ঢাকা থেকে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে জনসভায় বক্তব্য দেন তিনি।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের রাজশাহী বিভাগীয় সমন্বয়ক ও বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনুর সভাপতিত্বে জনসভায় যোগ দিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, এলডিপির সভাপতি কর্নেল (অব.) অলি আহমদ, বিজেপির সভাপতি আন্দালিব রহমান পার্থ, জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না প্রমুখ।