‘খালেদা জিয়ার নিরাপত্তায় কারাগারে কোর্ট বসানো হয়েছে’

প্রকাশিত: ৪:০৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৮ | আপডেট: ৪:০৫:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৮
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফাইল ছবি

দুর্নীতির মামলায় কারাবন্দী বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার শারীরিক অসুস্থতা ও নিরাপত্তা বিবেচনা করে কারাগারে কোর্ট বসানো হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, কারাগারে কোর্ট বসানো যায়। বিডিআরের মামলার বিচার কারাগারের জায়গায় কোর্ট বসিয়ে করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় গণভবনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভার সূচনা বক্তব্যে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

খালেদা জিয়ার বিচার ক্যামেরা ট্রায়ালে হচ্ছে না দাবি করে প্রাধানমন্ত্রী বলেন, এটা ক্যামেরা ট্রায়াল নয়। পুরো দরজা খোলাই ছিল। এটা ক্যামেরা ট্রায়াল হলো কীভাবে? তার (খালেদা জিয়ার) আইনজীবীরা ভেতরে যায় নাই। তাদের (বিএনপির) কোনও কোনও আইনজীবী গেটে গিয়ে বসেছিল। কিন্তু কোর্টের রুমে ঢুকে নাই। তারা আশপাশে বসেছিল। অবাধে সবাই যাতায়াত করতে পেরেছে। এটা কীভাবে ক্যামেরা ট্রায়াল হয়।

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের সময়কার কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, জিয়াউর রহমান কারাগারে কোর্ট বসিয়ে বিচার করেছিলো। তাহলে কি জিয়াউর রহমান সংবিধান লঙ্ঘন করে অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করেছিলো বলে জেলে কোর্ট বসিয়ে বিচার করতে পারবে? তাহলে তারা (বিএনপি) বলুক জিয়াউর রহমান অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করেছিলো।

খালেদা জিয়ার আইনজীবীদের আদালতে হাজির না হওয়া প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা কেন যায়নি? তাহলে তারা কি জানে যে, খালেদা জিয়াকে নির্দোষ প্রমাণ করা যাবে না। তাই তারা যায়নি।

খালেদা জিয়ার বিচার নিয়ে বিএনপি নেতাদের বক্তব্যের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, অপরাধী অপরাধীই, তার বিচার হবেই। এখানে কোনো রাজনীতি নেই, প্রতিহিংসাও নেই।