খেলতে গিয়ে গলায় ফাঁস লেগে শিশুর মৃত্যু

প্রকাশিত: ৮:৪৫ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৬, ২০২১ | আপডেট: ৮:৪৫:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৬, ২০২১
ফাইল ছবি

রাজধানীর হাজারীবাগের রায়েরবাজারে গামছা ও তোয়ালে দিয়ে খেলতে গিয়ে গলায় ফাঁস লেগে আয়েশা (৫) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

আজ সোমবার (২৬ এপ্রিল) বিকেল সোয়া ৪টার দিকে আচেতন অবস্থায় স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

আয়শা বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বংকুরা গ্রামের হৃদয় খানের মেয়ে। পরিবারটি রায়েরবাজার টিলাবাড়ি বাবুল হোসেনের তৃতীয় তলা বাড়ির দ্বিতীয় তলাতে ভাড়া থাকতো। আয়শা স্থানীয় একটি স্কুলে পড়তো।

শিশুটির বাবা হৃদয় খান জানান, তিনি ভ্যানে করে কাঁচামাল বিক্রি করেন ও তার স্ত্রী রাশিয়া আক্তার বাসাবাড়িতে কাজ করেন। তাদের বড় ছেলে মাদরাসায় পড়ে। দুপুরে তারা দু’জনই কাজে ছিলেন। তখন বাসায় আয়শা একা ছিল। বিকেলে ৩টার দিকে তার মা কাজ থেকে বাসায় ফিরে ঘরের দরজা ভেতর থেকে বন্ধ দেখতে পায়। তখন অনেক ডাকাডাকি করেও আয়শার কোনো সাড়া-শব্দ পায় না। পরে তাকে ডেকে আনেন। এরপর মিস্ত্রি দিয়ে দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে জানালার গ্রিলের সঙ্গে গামছা পেচিয়ে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় দেখতে পাওয়া যায় আয়শাকে। তবে তার পা বিছানার উপর লাগানো ছিল। এ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

হৃদয় খান আরও জানান, ‘আমার স্ত্রী রশিয়া বেগম ছুটা বুয়ার কাজ করে। আমরা বাসায় ওকে (আয়েশা) একা রেখে আমরা বাইরে চলে যাই। ও প্রতিদিনই গামছা ও তোয়ালে দিয়ে দরজা বন্ধ করে খেলে। সোমবার খেলতে গিয়ে অসাবধানবশত গলায় ফাঁস লেগে যায়।’

ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) বাচ্চু মিয়া জানান, হাজারীবাগ থেকে পাঁচ বছরের একটি মেয়ে গলায় ফাঁস দিয়েছে বলে জানতে পেরেছি। পরে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।