গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি না মানলে ব্যবস্থা: কাদের

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:৪৩ অপরাহ্ণ, মে ৩০, ২০২০ | আপডেট: ৫:৪৩:অপরাহ্ণ, মে ৩০, ২০২০
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। ফাইল ছবি

করোনা সংক্রমণের মধ‌্যে চালু হওয়া গণপরিবহনে স্বাস্থ‌্যবিধির শর্তগুলো না মান‌লে তাদের বিরুদ্ধে ব‌্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর সংসদ ভবন এলাকায় সরকারি বাসভবনে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আগামীকাল থেকে সরকারি-বেসরকারি অফিস খুলছে। সরকারি ছুটির সঙ্গে মিল রেখে বন্ধ থাকা গণপরিবহন খুলতে যাচ্ছে। আগামী সোমবার ১ জুন থেকে সড়ক পরিবহন শুরু হচ্ছে। পরিবহন মালিক ও শ্রমিক সংগঠন এবং সংশ্লিষ্ট স্টেক হেল্ডারদের সঙ্গে আমরা কথা বলেছি।

গণপরিবহনে স্বাস্থ‌্যবিধি কঠোরভাবে প্রতিপালনে সকলেই সম্মতি দিয়েছে। আমরা সবাই মিলে ভালো থাকতে চাই। সামান‌্য উপেক্ষা ভয়াবহ বিপদ ডেকে আতে পারে। তাই যে সকল শর্ত বিআরটিএ তথা মন্ত্রণালয় দেয়া হয়েছে সেসব শর্ত যথাযথভাবে প্রতিপালনে আমি নিজেদের স্বার্থেই যাত্রী সাধারণ, মালিক ও শ্রমিক সংগঠনকে অনুরোধ জানাচ্ছি। এ সকল শর্তগুলো প্রতিপালনের মাধ‌্যমে করোনা সংক্রমণ থেকে যানবাহন ও যাত্রীদের সুরক্ষা দিতে হবে। যে সকল পরিবহন সরকারি নির্দেশনা প্রতিপালনে ব‌্যর্ত হবে তাদের বিরুদ্ধে ব‌্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের সকল স্টেক হেল্ডারদের নিয়ে টার্মিনাল ভিত্তিক মনিটরিং টিম গঠনের ও কাউন্সিলিংয়ের আহ্বান জানিয়ে ওবায়দুল কা‌দের বলেন, সরকারি নজরদারিসহ বিআরটিএ’র মোবাইল টিম কার্যকর থাকবে। আমরা চাই না পরিবহন কিংবা টার্মিনাল করোনা সংক্রমের কেন্দ্রে পরিনত হোক। আমি টার্মিনাল সমূহের কর্তৃপক্ষকে পুরো এলাকাজুড়ে পরিচ্ছন্নতা অভিযান তথা জীবানু মুক্ত রাখার আহ্বান জানাচ্ছি।

গণপরিবহন চলার ক্ষেত্রে শর্তগুলো তুলে ধরে ওবায়দুল কাদের বলেন, বাসসমূহে ৫০ ভাগ যাত্রী পরিবহন করা যাবে। অর্থাৎ অর্ধেক সিট খালি রাখতে হবে। যাত্রী ওঠানামার সময় সামাজিক দুরত্ব শারীরিক দুরত্ব মেনে চলতেই হবে। যাত্রী পরিবহন, শ্রমিক, চালক, চালকের সহকারী, কাউন্টার কর্মী সকলকে মাস্ক পরিধান বাধ‌্যতামূলক করতে হবে। হ‌্যান্ড স‌্যানিটাইজার ব‌্যবহারসহ টার্মিনাল এবং স্টেশনে সাবান ও পানির ব‌্যবস্থা রাখতে হবে হাত ধোয়ার জন‌্য। ট্রিপ শুরু হওয়ার আগে ও পরে জীবানুনাশক স্প্রে করতে হবে। অনুমোদিত নির্দিষ্ঠ স্টেশন ছাড়া যেখানে সেখানে থামানো যাবে না। যাত্রী ওঠা নামা যত্রতত্র করা যাবে না।

‌বি‌ভে‌দের রাজনী‌তিকে ক‌রোনার অভিন্ন শত্রু উল্লেখ ক‌রে তি‌নি ব‌লেন, আমাদের মাঝে রাজনৈতিক মত ও পার্থক‌্য আছে এবং থাকবেই, কিন্তু সবার এ কথা মনে রাখতে হবে যে, করোনা আমাদের সকলেরই অভিন্ন শত্রু। এই সময়ে বিভেদের রাজনীতি করোনা সংক্রমণে করোনার পরম বন্ধু হিসেবে কাজ করবে।