গলা ব্যথা মানেই করোনা নয়

প্রকাশিত: ৯:৪৯ অপরাহ্ণ, জুলাই ২২, ২০২০ | আপডেট: ৯:৪৯:অপরাহ্ণ, জুলাই ২২, ২০২০

করোনাভাইরাসের প্রাথমিক উপসর্গ হলো গলা ব্যথা, খুসখুসে কাশি ও জ্বর। যদিও সময়ের ব্যবধানে ভাইরাসটি তার আচরণ বদলে ভিন্ন ভিন্ন উপসর্গ নিয়ে হাজির হচ্ছে। তবে এখন পর্যন্ত গলা ব্যথাকেই অন্যতম প্রধান উপসর্গ হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। চিকিৎসকরা এও বলেছেন, জ্বরের সঙ্গে যদি গলা ব্যথা না থাকে তার মানে করোনা হয়নি। এমনকি খুসখুসে কাশি আছে কিন্তু গলা ব্যথা নেই তাহলেও ভয়ের কারণ নেই।

কিংবা কাশির সঙ্গে গলা ব্যথা থাকলে সেটা করোনার লক্ষণ। কারণ ভাইরাসটি গলা হয়ে ফুসফুসে ঢুকে। তবে মনে রাখতে হবে, গলা ব্যথা হলেই করোনা হয়েছে, এমনটা মনে করার কোনো কারণ নেই। করোনা ছাড়াও আরো নানান কারণে গলা ব্যথা হতে পারে।

১. অধিকাংশ সময় ভাইরাসজনিত কারণেই গলা ব্যথা হয়ে থাকে। তবে এর বাইরে অনেক ধরনের ভাইরাসের আক্রমণে গলা ব্যথা হতে পারে। ফ্যারেঞ্জাইটিস, টনসিলাইটিস, ল্যারিঞ্জাইটিস ভাইরাসগুলোর কাজই হলো গলায় আক্রমণ করা। ফলে গলায় প্রচুর ব্যথা হয়।

২. হাম, চিকেনপক্স হলেও গলায় ব্যথা হয়। এ সময় খাবার গিলতে প্রচণ্ড কষ্ট হয়।

৩. টনসিলে যদি ব্যাক্টেরিয়ার সংক্রমণ হয় তাহলেও গলা ব্যথা হতে পারে। বিশেষ করে শিশুদের এ ধরনের সংক্রমণ বেশি দেখা যায়।

৪. সিগারেট কিংবা কোনো রাসায়নিক পদার্থের প্রভাবে গলা ব্যথা হতে পারে। অনেক সময় দূষিত পরিবেশ থেকেও গলায় ইনফেকশন হয়ে ব্যথা হতে পারে।

৫. কিছু অসুখ আছে যেগুলোর উপসর্গ হিসেবে গলা ব্যথা দেখা যায়।

তাই গলা ব্যথা হলেই ঘাবড়ে যাবেন না। এ সময় এসি ও ঠান্ডা থেকে দূরে থাকা দরকার। পাশাপাশি আরামবোধের জন্য গরম পানি পান করা যেতে পারে।