গাজীপুরে আগুনে পুড়েছে ২০ বাড়ি-ব্যবসা প্রতিষ্ঠান

প্রকাশিত: ১০:৪৩ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৩, ২০১৯ | আপডেট: ১০:৪৩:পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৩, ২০১৯
ছবি: টিবিটি

নাসির উদ্দীন বুলবুল, গাজীপুর প্রতিনিধি: গাজীপুরের টঙ্গী ও কালীগঞ্জে পৃথক অগ্নিকা-ে ১২টি বসতঘর, পাঁচটি দোকান ও তিনটি ঝুটের গুদাম পুড়ে গেছে। টঙ্গীর মধ্য আরিচপুরের মধুমিতা এলাকায় গত শুক্রবার মধ্যরাত ও গতকাল শনিবার ভোরে কালীগঞ্জে অগ্নিকা-ের এসব ঘটনা ঘটে।

টঙ্গী ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের গুদাম পরিদর্শক মো. কবিরুল ইসলাম জানান, গত শুক্রবার রাত সোয়া ১২টার দিকে টঙ্গীর মধ্য আরিচপুরের মধুমিতা রেললাইনের পাশে রাশেদ চৌধুরীদের একটি ঝুটের গুদামে আগুন লাগে।

পরে তা পাশের নিয়ন চৌধুরী ও লাভলী বেগমের আরও দুটি ঝুটের গুদাম ও একটি বস্তির ১২টি বসতঘরে ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে টঙ্গীর তিনটি ও উত্তরার ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের একটি ইউনিট গিয়ে প্রায় দেড় ঘন্টা চেষ্টায় চালিয়ে আগুন নেভায়।

তবে তার আগেই ১২টি ঘর ও তিনটি ঝুট গুদাম পুড়ে যায়। বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকেই আগুনের সূত্রপাত বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।” তবে তিনি ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানাতে পারেননি।

এদিকে কালীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা মো. দেলোয়ার হোসেন খান জানান, গতকাল শনিবার ভোর ৪টার দিকে কালীগঞ্জ উপজেলার দড়িসোম এলাকায় আগুনে মঞ্জু হোসেনের আসবাবপত্রের দোকান, সেলিম মিয়ার মোটরসাইকেলের গ্যারেজ, কবির হোসেনের ডেকোরেটরের দোকান, ওসমান আলীর মাংসের দোকান ও আবিদ হোসেনের হোমিওপ্যাথি ওষুধের দোকান পুড়ে গেছে।

কালীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের একটি ও নরসিংদীর পলাশ ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের দুটি ইউনিট প্রায় দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণ করে। বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত বলে ধারণা করা হচ্ছে। আগুনে প্রায় ১৫ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি