গাজীপুর সিটি কাউন্সিলরসহ ২৫ জনের নামে চাঁদাবাজীর মামলা, গ্রেফতার ১

প্রকাশিত: ৭:২৩ অপরাহ্ণ, মে ৬, ২০২১ | আপডেট: ৭:২৩:অপরাহ্ণ, মে ৬, ২০২১
প্রতীকী ছবি

অবশেষে চাঁদাবাজির অভিযোগে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর এবং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ২৫ জনের নাম উল্লেখ করে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কাশিমপুর থানায় মামলা হয়েছে।

বুধবার বিকালে কেইসি কারখানার ব্যবস্থাপক মো. ইমতিয়াজ বাদি হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। মামলায় ৫ লাখ টাকা চাঁদাবাজীর অভিযোগ ও কারখানা ভাঙচুরের কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

এরইমধ্যে এক জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

কাশিমপুর থানার এসআই দীপংকর রায় বুধবার রাতে মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মামলায় কাউন্সিলর মন্তাজ উদ্দিন মন্ডল, ২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হালিম, সাধারণ সম্পাদক মো. শহিদুল্লাহ, আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল গনি, আবুল কাশেমসহ মোট ২৫ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করা হয়েছে। মামলার আসামি আছিম উদ্দিনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

কেইসি কারখানার এমডি মো. ফারুক আহমেদ জানান, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মন্তাজ উদ্দিন মন্ডল এর নেতৃত্বে ওইসব ব্যক্তিরা ২ বছর যাবৎ বিভিন্নভাবে চাঁদা দাবি করে আসছিলো। বিষয়টি সামাজিকভাবে সমাধানের চেষ্টা করলেও কাউন্সিলর ও তার লোকজন নিয়মিত হুমকি ধামকি দিয়ে আসছে। সর্বশেষ এবারের ঈদ উপলক্ষে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি কওে কাউন্সিলর ও তার লোকজন। চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় একপর্যায়ে কারখানায় শ্রমিক ও কর্মকর্তাদের মারধর করে তারা। চাঁদা না দিলে কারখানার আরও বড় ধরনের ক্ষতি সাধনের হুমকি প্রদান করেন তারা। মারধর ও ভাঙচুরের প্রতিবাদে কারখানার শ্রমিকরা গত ৩ ও ৪ মে ঢাকা ইপিজেড সড়ক অবরোধ করে। কারখানা ও তার শ্রমিকদের নিরাপত্তার স্বার্থে তিনি বুধবার মামলা রুজু করেছেন।

জিসিসির কাউন্সিলর মন্তাজ উদ্দিন মন্ডল চাঁদা দাবির বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, রাজনৈতিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্যই ষড়যন্ত্রমূলকভাবে এই মামলা করা হয়েছে।

কাশিমপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহবুব এ খোদা বলেন, সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে মামলাটি চলবে। অন্য আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।