গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে নাম তুললেন এক টাকার ডাক্তার

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:৫৬ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১৭, ২০২০ | আপডেট: ১১:৫৬:পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১৭, ২০২০

দীর্ঘ ৫৭ বছর রোগী দেখে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে নাম তুলেছেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বীরভূম জেলার এক টাকার ডাক্তার সুশোভন বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার তাকে লংগেষ্ট অ্যাওয়ারনেস রিবন পুরস্কার দেওয়া হয়।

গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড কতৃপক্ষ বোলপুরের বাড়িতে এসে সুশোভনবাবুর হাতে এই পুরস্কার তুলে দেন। কয়েক মাস আগে তিনি পদ্মশ্রী সম্মানে সম্মানিত হয়েছেন।

প্রতিদিন সকাল থেকে সন্ধ্যে পর্যন্ত কমপক্ষে ১৫০ জন করে রোগী দেখেন তিনি। ১৯৬৩ সাল থেকে আজও তিনি এভাবেই রোগী দেখে চলেছেন। আর সেই জন্যই এই পুরষ্কার।

গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে নাম ওঠায় অত্যন্ত খুশি সুশোভন বন্দ্যোপাধ্যায় এক সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, “গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডের পক্ষ থেকে ৫৭ বছর ধরে প্রতিদিন ১৫০ করে রোগী দেখার জন্য আমাকে সম্মান জানানো হয়েছে। এই সম্মানে আমি অভিভূত।”

দরিদ্র পরিবারের থেকে আসা রোগীদের চিকিৎসা করে বাড়ি ফেরানোর দ্বায়িত্ব নিয়েছেন চিকিৎসক সুশোভন বন্দ্যোপাধ্যায়। তাই তাঁকে কেউ বলে গরিবের ডাক্তার। আবার তিনি চিকিৎসা করতে কয়েক দশক ধরে রোগী পিছু এক টাকা ফি নিয়ে আসছেন বলে কেউবা তাঁকে বলে এক টাকার ডাক্তার।

তবে গরীবের ডাক্তারের বাড়ির সামনে প্রতিদিন সকালেই দেখা যায় লম্বা লাইন। বীরভূম এবং আশেপাশের জেলা থেকে ভিড় জমান রোগীরা।

সুশোভন বন্দ্যোপাধ্যায় বিশ্বভারতীর পাঠভবনের ছাত্র ছিলেন। পরে তিনি আরজি কর থেকে ১৯৬২ সালে ডাক্তারি পড়েন। উচ্চশিক্ষা লাভের জন্য তিনি লন্ডনেও যান। তাঁর প্রথম কর্মক্ষেত্র বিশ্বভারতীর পিয়ারসন মেমোরিয়াল হাসপাতাল। দীর্ঘদিন সেখানে ডাক্তারি করেছেন তিনি। হাসপাতালে চাকরির পাশাপাশি নিজের বাড়িতে এক টাকা ফি নিয়ে রোগী দেখা শুরু করেন তিনি।

বর্তমানে তিনি নিজে অসুস্থ কিন্তু রোগী দেখা এখনও বন্ধ করেননি তিনি।