গুঞ্জন উড়িয়ে দিলেন আনোয়ার ইব্রাহিম

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:৪৭ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৮ | আপডেট: ১০:৪৭:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৮

মালেশিয়ার রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব আনোয়ার ইব্রাহিম উপ-নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন এবং তিনি দেশটির মন্ত্রী হতে চান বলে যে গুঞ্জন উঠেছিল তিনি তার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

তিনি বলেন, উপ-নির্বাচনে জয়ী হওয়ার মাধ্যমে তার জন্য মালয়েশিয়ার আইনসভায় ভূমিকা রাখা সহজ হবে এবং এতে করে তিনি দেশটির প্রধানমন্ত্রী ড. মাহাথির মোহাম্মদকে সহযোগিতা করতে পারবেন।

গুঞ্জন রটে যে, আনোয়ার ইব্রাহিম এই নির্বাচনের মাধ্যমে দেশটির আইনসভায় তার আসন শক্ত করতে চান যাতে করে তিনি একজন মন্ত্রী হতে পারেন।

জবাবে আনোয়ার ইব্রাহিম বলেন যে, আমি আসলে মন্ত্রী হতে নয় বরং আইনসভার একজন সদস্য হতে চাই।

তিনি বলেন, পোর্ট ডিকসনের উপনির্বাচনে তার অংশ নেয়ার বিষয়টি শুধুমাত্র ড. মাহাথিরই সমর্থন করেননি বরং দেশটির অর্থমন্ত্রী লিম গুয়ান ইং এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মুহিইদ্দিন ইয়াসিনও তাকে সমর্থন দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, চলতি মাসের ২৪ তারিখে দেশটির তামান সাউইত নামের একটি রাজ্যে আনোয়ার ইব্রাহীম একটি রাজনৈতিক সভায় বক্তৃতা দেন।

ওইদিন সকাল থেকে বৃষ্টি হওয়া সত্ত্বেও আনোয়ার ইব্রাহীমের সমর্থকরা সেখানে জড়ো হন।

বন্দিদশা থেকে মুক্তির পরে তামান সাউইত রাজ্যে এটি ছিলো আনোয়ারের প্রথম সফর।

উল্লেখ্য, সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাককে সমর্থন না করায় তার ব্যক্তিগত আক্রোশের শিকার হয়েছিলেন বলে মন্তব্য করেছেন মালয়েশিয়ার বর্তমান ক্ষমতাসীন জোট পাকাতান হারাপান এর অন্যতম নেতা আনোয়ার ইব্রাহিম।

ক্ষমতাসীন জোটের অন্যতম প্রধান শরীক দল পিপলস জাস্টিস পার্টির চেয়ারম্যান তিনি। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ তাকে প্রধানমন্ত্রী পদের জন্য উত্তরসূরী হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন।

এক সময়ে মালয়েশিয়ার উপপ্রধানমন্ত্রী আনোয়ার ইব্রাহিম গার্ডিয়ান অনলাইনকে বলেছেন, আমি কখনই নাজিব রাজাককে সমর্থন করিনি।

‘তার বিরুদ্ধে সবসময় আমার জোরালো দৃষ্টিভঙ্গি ছিল। পরে আমি তার ব্যক্তিগত আক্রোশের শিকার হয়েছি। যে কারণে তিনি আমাকে শেষ করে দিতে চেয়েছিলেন।’

১৯৯৮ সালে মাহাথির মোহাম্মদ তাকে উপপ্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে বরখাস্ত করেন এবং সমকামিতার অভিযোগে তাকে কারাগারে পাঠান।