গ্যাস সিলিন্ডারের গায়ে মূল্য লেখার নির্দেশ

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:১৩ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২০, ২০২০ | আপডেট: ৭:১৩:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২০, ২০২০
সংগৃহীত

এলপি গ্যাসের সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য নির্ধারণ করে সিলিন্ডারের গায়ে লিখতে আগামী ১ মার্চ পর্যন্ত সংশ্লিষ্টদের সময় বেঁধে দিয়েছেন হাইকোর্ট।

সোমবার (২০ জানুয়ারি) এ সংক্রান্ত এক রিটের শুনানি শেষে বিচারপতি মোস্তাফিজুর রহমান ও বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

পাশাপাশি আদালত রুল জারি করেছেন—আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে মিল রেখে এলপি গ্যাসের মূল্য নির্ধারণের জন্য কমিটি গঠনের নির্দেশ কেন দেওয়া হবে না?

আইনজীবী মনিরুজ্জামান লিংকন আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন। ডেপুটি অ্যার্টনি জেনারেল অমিত তালুকদার রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন।

শুনানিতে আইনজীবী লিংকন বলেন, এলপি গ্যাস সিলিন্ডারের গায়ে সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য লেখা থাকে না। বেসরকারি এলপি গ্যাস সরবরাহকারী স্থানীয় কোম্পানিগুলো আন্তর্জাতিক বাজারে মূল্য বৃদ্ধির কারণ দেখিয়ে যখন-তখন মূল্য বাড়াচ্ছে।

আন্তর্জাতিক বাজারে মূল্য বাড়ার আগেই যে গ্যাস আমদানি করা হয়েছিল, সেগুলোর মূল্যও বাড়িয়ে দেয় কোম্পানিগুলো। গ্যাসের মূল্য নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থা না থাকায় গ্রাহকদের বিপাকে পড়তে হচ্ছে। সিলিন্ডারের গায়ে মূল্য লেখা থাকলে ভোক্তাকে অতিরিক্ত অর্থ গুণতে হবে না। আন্তর্জাতিক বাজারে মূল্য বাড়ার কারণ দেখিয়ে অসাধু ব্যবসায়ীরাও যখন-তখন মূল্য বাড়াতে পারবেন না।

গত ১৩ জানুয়ারি এলপি গ্যাসের মূল্য নির্ধারণের জন্য কমিশন গঠনের নির্দেশনা চেয়ে রিট করেন আইনজীবী মনিরুজ্জামান লিংকন। রিটে সিলিন্ডারের গায়ে দাম উল্লেখ করারও নির্দেশনা চাওয়া হয়। রিটে এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্টদের বিবাদী করা হয়।

এর আগে ৬ জানুয়ারি গৃহস্থালি ও হোটেল-রেস্তোরাঁয় ব্যবহার করা এলপি গ্যাসের সিলিন্ডারের গায়ে সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য লিখে দিতে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়। নোটিশে জ্বালানি সচিব ও বাংলাদেশ অ্যানার্জি রেগুলেটরি কমিশনের চেয়ারম্যানকে নোটিশে বিবাদী করা হয়।