গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা আত্মসাত, ব্যাংকের নৈশ প্রহরী ও ঝাড়ুদার রিমান্ডে

শাহজাদা এমরান শাহজাদা এমরান

কুমিল্লা প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৯:২৫ অপরাহ্ণ, মার্চ ৩, ২০২১ | আপডেট: ৯:২৭:অপরাহ্ণ, মার্চ ৩, ২০২১

কুমিল্লায় পূবালী ব্যাংকের পদুয়ার বাজার (বিশ্বরোড) শাখা থেকে গ্রাহকের টাকা আত্মসাতের মামলায় গ্রেপ্তার হওয়া ব্যাংকের নৈশ প্রহরী এরশাদুল হক ও ঝাড়ুদার তাপস কুমার দাশের চারদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।

বুধবার দুপুরে শুনানি শেষে কুমিল্লার ৯ নম্বর আমলি আদালতের বিচারিক হাকিম এই রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সদর দক্ষিণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেবাশীষ চৌধুরী।

অ্যাকাউন্ট থেকে ৬ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি রাতে সদর দক্ষিণ থানায় অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন উপজেলার বিজয়পুর ইউনিয়নের আলেকদিয়া গ্রামের হারুন মিয়ার ছেলে নজরুল ইসলাম। ওইদিন রাতেই এ ঘটনায় ব্যাংকের ওই শাখার নৈশ প্রহরী ও ঝাড়–দারকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরদিন ২৪ ফেব্রুয়ারি তাদেরকে কুমিল্লার আদালতে প্রেরণ করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ড আবেদন করা হয়।

বুধবার রাতে সদর দক্ষিণ মডেল থানার ওসি দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, বৃহস্পতিবার আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হতে পারে। আশা করছি তাদের কাছ থেকে এ ঘটনায় গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যাবে। আর এ ঘটনায় যারাই জড়িত থাকুক তাদের দ্রুত সময়ের মধ্যে গ্রেপ্তার করা হবে।

জানা গেছে, ভুক্তভোগী গ্রাহক পেশায় ট্রাক চালক। তিনি জেলার নাঙ্গলকোটে কাজ করেন। গত ১৮ ফেব্রুয়ারি বিকেল ৪টা ৩৩ মিনিটে তার মুঠোফোনে একটি এসএমএস আসে। এতে তিনি দেখতে পান পূবালী ব্যাংক পদুয়ার বাজার শাখায় তার অ্যাকাউন্ট থেকে ৬ লাখ টাকা উত্তোলন করা হয়েছে। উত্তোলনের পর অ্যাকাউন্টে জমা আছে ৪৪ হাজার ৩শত ৬৭টাকা। কিন্তু তিনি কাউকে অ্যাকাউন্টের চেক দেননি।

এদিকে, যেদিন ওই গ্রাহকের টাকা উত্তোলন হয়েছে সেদিনের সিসি টিভির ফুটেজ পাচ্ছে না ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। ব্যাংকের একটি ভেন্টিলেটর ভেঙ্গে সিসি টিভির হার্ডডিস্ক পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে এমন কথা বলে ব্যাংক কর্তৃপক্ষও থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করেছে। ঘটনার দিন ম্যানেজারের দায়িত্বে থাকা সেকেন্ড অফিসার জাহিদুল ইসলাম ২২ ফেব্রুয়ারি ওই জিডি করেন। এরপর থেকে ঘটনাটি তদন্ত করছে ব্যাংকের কুমিল্লা আঞ্চলিক ও প্রধান কার্যালয়।