ঘরের মাঠে টানা পাঁচ হারে লিভারপুলের

প্রকাশিত: ১২:৫৫ অপরাহ্ণ, মার্চ ৫, ২০২১ | আপডেট: ১২:৫৮:অপরাহ্ণ, মার্চ ৫, ২০২১

জিততে যেন ভুলেই গেছে গত কয়েক মৌসুমে ইউরোপীয় ফুটবলে দাপট দেখানো ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল। দুর্দশা এমন পর্যায়ে পৌছেছে যে নিজেদের ঘরের মাঠেও সমাধান খুঁজে পাঁচ্ছে না, হারছে একের পর এক ম্যাচ।

অ্যানফিল্ডে বৃহস্পতিবার রাতে ১-০ ব্যবধানে জিতে লিভারপুলকে শিরোপার দৌড় থেকে একরকম সরিয়েই দিয়েছে টমাস টুখেলের চেলসি। ব্যবধান গড়ে দেওয়া গোলটি করেন ম্যাসন মাউন্ট।

ত্রিশ বছর পর জেতা শিরোপা ধরে রাখার মিশনে মৌসুম শুরু করলেও এই মৌসুমের প্রায় শুরু থেকেই ম্রীয়মান অল রেডরা। গতরাতেও ম্যাচজুড়ে ধুঁকতে দেখা গেল তাদের। লক্ষ্যে শট রাখতে পারল কেবল একটি; তাও আবার ম্যাচের ৮৫তম মিনিটে। ২০১০ সালের পর এই প্রথম গোলে শট নিতে এত বেশি সময় নিলো তারা। ২০১০ সালের সেই রেকর্ডটিও ছিল চেলসির বিপক্ষে (৯০তম মিনিটে)।

অপরদিকে উজ্জীবিত ফুটবল খেলে অ্যানফিল্ড থেকে দারুণ এক জয় স্ট্যামফোর্ড ব্রীজে ফিরেছে চেলসি। এই জয়ে তারা উঠে এসেছে লিগের পয়েন্ট টেবিলের চার নম্বরে।

চেলসির কাছে এ হারটি ঘরের মাঠে চলতি লিগে লিভারপুলের টানা পঞ্চম পরাজয়। এছাড়া প্রিমিয়ার লিগে ঘরের মাঠে টানা সাত ম্যাচ জয়হীন থাকল তারা। ইংলিশ টপ ফ্লাইটে এটিই তাদের সবচেয়ে কলঙ্কজনক হোম রান।

সবশেষ গতবছরের ডিসেম্বরে অ্যানফিল্ডে টটেনহ্যাম হটস্পারকে ২-১ গোলে হারিয়েছিল লিভারপুল। এরপর ড্র করে দুই ম্যাচ ও হেরেছে টানা পাঁচটি ম্যাচ। এর ফলে প্রথম প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে শিরোপাধারী দল হিসেবে লিগে সবচেয়ে বাজে শুরু করেছে তারা।

নিজেদের মাঠে লিভারপুলের সাত ম্যাচ জয়হীন থাকার যাত্রাটা শুরু হয় ২৭ ডিসেম্বর ওয়েস্ট ব্রমের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করার মাধ্যমে। জানুয়ারিতে তারা গোলশূন্য ড্র করে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সঙ্গে। এরপর তারা টানা পাঁচটি ম্যাচ হারল যথাক্রমে বার্নলি (০-১), ব্রাইটন (০-১), ম্যানচেস্টার সিটি (১-৪), এভারটন (০-২) ও চেলসির (০-১) কাছে।

সবশেষ পরাজয়ে একমাত্র গোলটি করেছেন চেলসির ২২ বছর বয়সী অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার ম্যাসন মাউন্ট। ম্যাচের ৪২ মিনিটের সময় এনগোলো কান্তের বাড়ানো বল ধরে ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন তিনি। লিভারপুলের দুই খেলোয়াড়ের বাধায় প্রথমে শট নিতে পারেননি। একটু সরে গিয়ে ডান পায়ের শটে ঠিকানা খুঁজে নেন ইংলিশ মিডফিল্ডার।

এই হারের পর এখন ২৭ ম্যাচে ৪৩ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের সাত নম্বরে নেমে গেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল। সমান ম্যাচে ৪৭ পয়েন্ট নিয়ে চার নম্বরে উঠে গেছে চেলসি। তাদের ধরাছোঁয়ার বাইরে ৬৫ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষে থাকা ম্যানচেস্টার সিটি।

এই হারের পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের আগামী মৌসুমে নিজেদের জায়গা ধরে রাখাটাও শঙ্কায় পড়েছে। এমনিতেই ২৭ ম্যাচে ৪৩ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের ৭ নম্বরে অবস্থান করছে তারা, যেখানে প্রিমিয়ার লিগের প্রথম চারদলেই কেবল সুযোগ পায় চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেলার। তার ওপর এক ম্যাচ কম খেলে ৪২ পয়েন্ট নিয়ে ঠিক তাদের নিচে অবস্থান করছে হোসে মরিনহোর টটেনহ্যাম। দুই ম্যাচ কম খেলে ৩৯ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার নয়ে রয়েছে এস্টন ভিলা। ফলে করোনায় বিলম্বিত ম্যাচগুলোতে টটেনহ্যাম ও ভিলা জয় পেলে পয়েন্ট টেবিলের নবম স্থানে অবনমন হতে পারে ইয়ুর্গেন ক্লপের শিষ্যদের।