চবিতে শিবির সন্দেহে শিক্ষার্থীকে ছাত্রলীগের মারধর

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১:১৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৪, ২০১৮ | আপডেট: ১:১৪:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৪, ২০১৮

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) শিবির সন্দেহে শাহেদুল ইসলাম নামে এক শিক্ষার্থীকে মারধর করেছে শাখা ছাত্রলীগের একাংশের নেতা-কর্মীরা। আহত শাহেদুল শিক্ষা ও গবেষণা ইন্সটিটিউটের ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী। অন্যদিকে মারধরকারীরা সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের অনুসারী হিসেবে ক্যাম্পাসে পরিচিত।

মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের কলার ঝুপড়িতে মারধরের এ ঘটনা ঘটে। এতে ওই শিক্ষার্থীর মাথায় গুরুতর আঘাত পেয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুপুরে শাহেদুল কলার ঝুপড়ির দিকে গেলে ১০ থেকে ১২ জন ছাত্রলীগ কর্মী তাকে শিবির বলে মারধর করতে থাকে। পরে তাকে ক্যাম্পাসে কর্মরত দুই সাংবাদিক ও তার বড় ভাই উদ্ধার করে চবি মেডিকেল সেন্টারে নিয়ে যায়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেলে পাঠানো হয়।

এবিষয়ে চবি মেডিকেল সেন্টারের প্রধান চিকিৎসক আবু তৈয়ব জানান, আহত শিক্ষার্থীর মাথায় গুরুতর আঘাত রয়েছে। তাই চমেকে রেফার করা হয়েছে।

মারধরের বিষয় স্বীকার করে ছাত্রলীগের বিলুপ্ত কমিটির উপ-গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক ইকবাল হোসেন টিপু বলেন, ওই শিক্ষার্থী বিভিন্ন সময় আমাদের নেত্রীর নামে বিভিন্ন ধরনের অপপ্রচার করে ফেসবুকে লেখালেখি করত। দুই বছর আগেও তাকে শিবির সম্পৃক্ততা অভিযোগে পুলিশে সোপর্দ করা হয়। আজও সে ক্যাম্পাসে নাশকতা করতে আসে এমন খবরে ছাত্রলীগ কর্মীরা তাকে প্রতিহত করে।

তবে আহত শিক্ষার্থী শাহেদুল ইসলাম জানান, কোটা সংস্কার আর নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে তাকে মারধর করা হয়েছে৷ এসময় পূর্বে তিনি ছাত্রলীগের রাজনীতিতে যুক্ত ছিল বলেও জানান।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর লিটন মিত্র বলেন, একজন শিক্ষার্থীকে মারধর করা হয়েছে বলে আমরা শুনেছি। এ বিষয়ে তার বড় ভাই সিক্সটি নাইনের কর্মীদের নাম উল্লেখ করে মৌখিকভাবে আমাদের জানিয়েছে। লিখিত অভিযোগ দিলে আমরা নিয়ম অনুযায়ী ব্যবস্থা নিব।