চরম নাটকীয়তা শেষে ২-২ গোলে নিষ্পত্তি এভারটন-লিভারপুল ম্যাচ

টিবিটি টিবিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ৮:৪৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৭, ২০২০ | আপডেট: ৮:৪৬:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৭, ২০২০

লিভারপুল-এভারটনের ম্যাচ শেষে যা হলো তার পর ক্লপ নিজেদের দুর্ভাগা ভাবতেই পারেন। ম্যাচে দুইবার এগিয়ে গিয়েছিল লিভারপুল, প্রথমে সাদিও মানে এবং তারপর মোহামেদ সালাহর গোলের সুবাদে। আর দুইবারই লিভারপুলকে দ্রুত পাল্টা জবাব দিয়েছে ‘নতুন এভারটন।’ প্রথমে মাইকেল কিন এবং শেষদিকে ডমিনিক ক্যালভার্ট-লুইনের গোলের মাধ্যমে সমতায় ফেরে তারা। যোগ করা সময়ে জর্ডান হেন্ডারসনের গোলে পূর্ণ পয়েন্ট পেতে পারত লিভারপুল। তবে সুক্ষ্মের চেয়েও সূক্ষ্ম অফসাইডের জন্য তা হয়নি।

গুডিসন পার্কে এই ডার্বি নিয়ে প্রতীক্ষাটা বেশিই ছিল। দীর্ঘ সময় পর ম্যাচের আগে দুই দলের মাঝে এভারটনকে এগিয়ে রাখা গিয়েছিল অনেক দিক দিয়ে। দীর্ঘ দশ বছর পর আবারও প্রিমিয়ার লিগে এভারটন লিভারপুলকে হারাতে পারে বলে বিশ্বাস জন্মেছিল এভারটন সমর্থকদের মনে। এভারটনের খেলায় সেই বিশ্বাস খানিকটা এসেছিল, লিভারপুলকে ছেড়ে কথা বলেনি তারা।

জয়ে ফেরার লক্ষ্যে লিভারপুলের শুরুটা হয় দারুণ। তৃতীয় মিনিটে দলকে এগিয়ে নেন কোভিড-১৯ থেকে সেরে ওঠা মানে। ডি-বক্সের বাঁ দিক থেকে অ্যান্ড্রু রবার্টসনের নিচু ক্রসে জোরালো শটে ঠিকানা খুঁজে নেন সেনেগালের এই ফরোয়ার্ড।

একটু পর ধাক্কা খায় লিভারপুল। প্রতিপক্ষ গোলরক্ষক জর্ডান পিকফোর্ডের ট্যাকলে আঘাত পেয়ে মাঠ ছাড়েন ভার্জিল ফন ডাইক। ফাবিনিয়োর ক্রস রিসিভের সময় এই ডাচ ডিফেন্ডার অফসাইডে না থাকলে অবশ্য পেনাল্টি পেতে পারত সফরকারীরা।

সমতায় ফিরতে বেশি সময় লাগেনি এভারটনের। ১৯তম মিনিটে হামেস রদ্রিগেসের কর্নার থেকে হেডে বল জালে পাঠান ইংলিশ ডিফেন্ডার কিন।

২৬তম মিনিটে আবার এগিয়ে যেতে পারত লিভারপুল। তবে ট্রেন্ট অ্যালেকজ্যান্ডার-আর্নল্ডের ফ্রি-কিক ফিরিয়ে এভারটনের ত্রাতা পিকফোর্ড। ৩৫তম মিনিটে বাইরে দিয়ে বল মেরে সুযোগ নষ্ট করেন মানে। বিরতির আগে সালাহও একটি সুযোগ কাজে লাগাতে ব্যর্থ হন।

৫৯তম মিনিটে বেঁচে যায় লিভারপুল। রদ্রিগেসের ক্রসে এভারটনের ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রিশার্লিসনের হেড লাগে পোস্টে।

৭২তম মিনিটে সালাহর গোলে আবার এগিয়ে যায় লিভারপুল। জর্ডান হেন্ডারসনের ক্রস এভারটনের ইয়েরি মিনা ক্লিয়ার করতে ব্যর্থ হলে জোরালো শটে লিভারপুলের জার্সিতে নিজের শততম গোলটি করেন সালাহ।

তাদের সেই স্বস্তি অবশ্য বেশিক্ষণ টেকেনি। ৮১তম মিনিটে হেডে স্বাগতিকদের সমতায় ফেরান ক্যালভার্ট-লুইন।

নির্ধারিত সময়ের শেষ মিনিটে লিভারপুলের থিয়াগো আলকান্তারাকে ফাউল করে লাল কার্ড দেখেন রিশার্লিসন। যোগ করা সময়ে বল জালে পাঠিয়ে উৎসব শুরু করেছিলেন হেন্ডারসন। কিন্তু ভিএআরের সাহায্য নিয়ে রেফারি অফসাইডের বাঁশি বাজান।

পাঁচ ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে এখনও শীর্ষে আছে এভারটন। ১০ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে উঠে এসেছে লিভারপুল।