চীনের সঙ্গে অর্থনৈতিক করিডর নিয়ে পিছু হটবে না পাকিস্তান

প্রকাশিত: ৬:০১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৮ | আপডেট: ৬:০১:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৮

লন্ডনভিত্তিক দৈনিক ফিন্যান্সিয়াল টাইমসের একটি প্রতিবেদনে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে পাকিস্তান ও চীন। পাক সরকারের কয়েকজন মন্ত্রীর বরাতে পত্রিকাটি বলেছে, ওয়ান বেল্ট, ওয়ান রোড উদ্যোগের বেইজিংয়ের সঙ্গে বেশ কয়েকটি চুক্তি নিয়ে নতুন করে আলোচনায় বসার কথা ভাবছে পাকিস্তান।

দেশটির দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন পত্রিকা জানিয়েছে, চীনকে পাকিস্তান নিশ্চিত করেছে- অর্থনৈতিক করিডর প্রকল্প থেকে পিছু হটার সুযোগ নেই। এটি তাদের জাতীয় অগ্রাধিকার।

পাক প্রধানমন্ত্রীর বাণিজ্য ও বস্ত্রবিষয়ক উপদেষ্টা আবদুল রাজ্জাক দাউদের উদ্ধৃতি দিয়ে ফিন্যান্সিয়াল টাইমস (এফটি) জানিয়েছে, চীন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডর নিয়ে আগের সরকার একটি বাজে আলোচনা করেছে। তারা সঠিকভাবে তাদের হোমওয়ার্ক করেনি। কাজেই তারা অনেক কিছু ছাড় দিয়েছে।

এফটিকে তিনি আরও বলেন, এ নিয়ে আলোচনা করতে প্রধানমন্ত্রী ৯ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছেন। এ প্রকল্প থেকে লাভ অলাভ নিয়ে আলোচনা করবেন তারা।

পাকিস্তানের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, পত্রিকাটি একটি অপ্রাসঙ্গিক ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত প্রতিবেদন ছেপেছে। চীন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডর নিয়ে নিজেদের প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেছে দুই দেশ।

মন্ত্রণালয়টি জানায়, চীন হচ্ছে পাকিস্তানের সবসময়ের কৌশলগত অংশীদার। আর দুই দেশের এই অর্থনৈতিক করিডর হচ্ছে তাদের জাতীয় অগ্রাধিকার। চীন সবসময় এ প্রকল্পের বিষয়টি সামনে নিয়ে আসছে। কাজেই এ করিডরের ভবিষ্যৎ নিয়ে পুরোপুরি ঐকমত্য রয়েছে।

পাকিস্তানে চীনা দূতাবাস এক বিবৃতিতে বলেছে, চীন-পাকিস্তানের মধ্যে এ বিষয়ে জোরালো ঐকমত্য রয়েছে, অর্থনৈতিক করিডর দুই দেশের জন্যই লাভজনক। পাকিস্তানের প্রয়োজন ও উন্নয়নে এ প্রকল্প অব্যাহত থাকবে।