চুমু-আলিঙ্গন ছাড়াই চলবে…

টিবিটি টিবিটি

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:৪৯ অপরাহ্ণ, জুন ৬, ২০২০ | আপডেট: ৯:৪৯:অপরাহ্ণ, জুন ৬, ২০২০

আগামী ১০ জুন থেকে টলিপাড়ায় শুরু হচ্ছে নাটকের শুটিং। করোনার এই পরিস্থিতিতে দৃশ্যপট সম্পূর্ণ ভিন্ন। যেখানে দেখা যাবে না, রানি রাসমণি তার সন্তানদের বুকে জড়িয়ে নিচ্ছেন। রোহিতের অব্যক্ত প্রেম হঠাৎ করেই সকলের অগোচরে ধরে নিচ্ছে শ্রীময়ীর হাত। আম্রপালি আর নিখিল আরও কাছাকাছি আসছে ক্রমশ!

শুটিংয়ে কলাকুশলীদের বজায় রাখতে হবে ৬ ফুট দূরত্ব, সিদ্ধান্ত এমনটাই।

হাত ধরা, বা রোম্যান্টিক দৃশ্য না-হয় বাদই দেওয়া গেল, কিন্তু রগরগে ফ্যামিলি ড্রামায় বউমা শাশুড়ির পা ধরে কাঁদছে, অথবা দাজ্জাল ননদকে ঠাস করে চড় কষিয়ে দিচ্ছেন প্রতিবাদী বড় বউ…সে সবেও তো ছুঁতে হবে একে অন্যকে!

ছ’ফুট দূরত্ব থেকে চড় কীভাবে লাগবে গিয়ে ননদের গালে? কীভাবেই বা সন্তানকে কোলে নিয়ে ঘুম পাড়াবেন মা? চিট শটের অপশন থাকলেও তা কতটা ‌‘রিয়ালিস্টিক’ দেখাবে? নাকি সেখানেও পরিস্থিতির প্রয়োজনে ঢুকবে করোনা-প্লট?

‘রাসমণি’র দিতিপ্রিয়া গোটা বিষয়টিকেই চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়ে বললেন, ‘আমাদের দর্শকরা জানেন যে কী রিস্ক নিয়ে আমরা কাজ করতে চলেছি। তাই আমরা যদি দূরে দাঁড়িয়েও অভিনয় করি সে ক্ষেত্রে প্রথমে দর্শকের কাছে একটু অবাক মনে হলেও ধীরে ধীরে সেটার সঙ্গে তারাও অভ্যস্থ হয়ে যাবেন। আর সুস্থভাবে কাজ করতে আমাদের এই ছাড়টুকু দর্শকরা দেবেন বলেই আমার বিশ্বাস।’

তিনি আরো বলেন, ‘অভিনয়টা আমাদের কাছে ইমোশন। করোনা-উত্তরকালের শুটিং পর্বে সেই আবেগে পড়বে বাধানিষেধ। এভাবেই অভ্যেস করে নিতে হবে। কারণ, নিজের জীবনের থেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ তো আর কিছু হতে পারে না।’

দূরত্ব বজায় রেখে গ্রহণযোগ্যতা বাড়াতে, রিয়ালিস্টিক ফিল নিয়ে আসতে কী করা যেতে পারে? এমন প্রশ্নে রিচালক রাজ চক্রবর্তী জানালেন, ‘ধারাবাহিকের ক্ষেত্রে কাটশটের ব্যবহার করা যেতে পারে। মানে ধরুন দু’জন মানুষের সিন। কিন্তু দু’জনের ডেট ম্যাচ করল না। এক জনের সিনটা আগে তুলে নিয়ে পরের জনেরটা অন্যদিনে তুলে দু’টিকে মিলিয়ে দেওয়া।’