চুয়াডাঙ্গায় পৃথক দুটি অভিযানে ১০৪ বোতল ফেন্সিডিল ও ৫০০ গ্রাম গাঁজাসহ আটক ২

প্রকাশিত: ৬:০২ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২০, ২০১৯ | আপডেট: ৬:০২:অপরাহ্ণ, আগস্ট ২০, ২০১৯
ছবি: টিবিটি

চুয়াডাঙ্গা সংবাদদাতা: চুয়াডাঙ্গার সদর উপজেলার আকন্দবাড়ীয়ায় এবং জীবননগর উপজেলার শেয়ালমারী এলাকা হতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‍্যাবের পৃথক দুটি অভিযানে ১০৪ বোতল ফেন্সিডিল ও ৫০০ গ্রাম গাঁজা সহ দুইজন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করতে সক্ষম হয়।

র‍্যাব সুত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার দুপুর ১২ টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সিপিসি-২, র‌্যাব-৬ এর একটি চৌকস আভিযানিক দল কোম্পানী কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ মাসুদ আলম এর নেতৃত্বে চুয়াডাঙ্গা জেলায় মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনার নিমিত্তে গমন করেন।

এসময় আকন্দবাড়ীয়ার জীবননগর টু চুয়াডাঙ্গা গামী সড়কের বটতলা মোড়ে পাকা রাস্তার উপর একজনকে সন্দেহজনক ভাবে আটক করে। এসময় তার কাছে থাকা ব্যাগ থেকে ১০৪ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। আটককৃত মাদক ব্যবসায়ী দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা ঈশ্বরচন্দ্রপুর গ্রামের আনোয়ার মন্ডলের ছেলে মন্টু মিয়া (৪৫)।

অপরদিকে চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর উপজেলার শেয়ালমারী গ্রামস্থ জীবননগর-দর্শনা মহাসড়ক সংলগ্ন জনৈক তৈয়ব আলী এর চা দোকানের সামনে অভিযান পরিচালনা করে দুপুর দেড়টার দিকে ৫০০ গ্রাম গাঁজাসহ ১ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করতে সক্ষম হয়। আটককৃত মাদক ব্যবসায়ী জীবননগর উপজেলার সীমান্ত ইউনিয়নের গোয়ালপাড়া গ্রামের শুকুর আলীর ছেলে সামাউল হক জীবন (১৯)।

পরবর্তীতে উক্ত উদ্ধারকৃত আলামত ও গ্রেফতারকৃত আসামীদ্বয়কে চুয়াডাঙ্গা জেলার সদর থানায় এবং জীবননগর থানায় হস্তান্তর করতঃ ১৯৭৪ সালের স্পেশাল পাওয়ার এ্যাক্ট ২৫-ই(২) ধারা এবং মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ২০১৮ এর ৩৬(১) সারণির ১৯(ক) ধারার পৃথক পৃথক মামলা করা হয়।

এবিষয়ে ঝিনাইদাহ র‍্যাব -৬ এর পরিচালক এএসপি মাসুদ আলম জানান বর্তমান প্রেক্ষাপটে তরুণ সমাজ ধ্বংসের সবচেয়ে আলোচিত এবং অন্যতম মাধ্যম হিসেবে মাদকদ্রব্যকে ব্যবহার করা হচ্ছে।

এতদ্সংক্রান্তে এক শ্রেণীর অসাধু মাদক ব্যবসায়ী নিজস্ব স্বার্থ সিদ্ধির উদ্দেশ্যে অবৈধভাবে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ প্রত্যন্ত অঞ্চলের যুব সমাজের হাতে মাদকদ্রব্য বা নেশাজাতীয় দ্রব্য পৌঁছে দেওয়ার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। সমাজে মাদকের ভয়াল থাবার বিস্তার রোধকল্পে এই সকল মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেফতারসহ মাদক বিরোধী অভিযানে র‌্যাব সর্বদা সক্রিয় ভূমিকা পালন করে আসছে।