চেহারা মায়ের মতো হওয়ায় সন্তান অস্বীকার বাবার, অতঃপর…

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৩:৫৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৮ | আপডেট: ৩:৫৪:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৮

চেহারা মায়ের মতো হওয়ায় সন্তানদের অস্বীকার করলেন বাবা। সেইসঙ্গে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে স্বামী ও তার পরিবারের সদস্যরা।

বরিশালের মুলাদী উপজেলার সফিপুর ইউনিয়নের চরপদ্মা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সোমবার সকালে আহত গৃহবধূ শারমিনকে মুলাদী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, প্রায় ৯ বছর আগে সফিপুর ইউনিয়নের ব্রজমোহন গ্রামের হাছান সরদারের মেয়ে শারমিনের সঙ্গে সোহরাব মুন্সীর বিয়ে হয়। ওই দম্পতির একটি ছেলে ও একটি মেয়ে রয়েছে। ছেলে ও মেয়ের চেহারা মায়ের মতো হওয়ায় স্বামী সোহরাব মুন্সী ও তার ভাইয়েরা সন্তানদের অস্বীকার করে। সেইসঙ্গে শারমিনকে অপবাদ দিতে থাকে এবং স্বামীর সংসার ত্যাগ করার নির্দেশ দেয়।

শারমিন তার স্বামী-সন্তানদের ছেড়ে দিতে অস্বীকার করলে সোহরাব ও তার ভাইয়েরা তাকে হত্যাসহ বিভিন্ন প্রকার হুমকি দেয়। গত ২৩ আগস্ট সোহরাব তার ছেলে-মেয়েকে অজ্ঞাত স্থানে রেখে আসে এবং শারমিনকে তার বাবার বাড়িতে চলে যেতে বলে। কিন্তু শারমিন তার সন্তানদের ফেরত পাওয়ার জন্য স্বামীর কাছে আকুতি জানায়।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে রোববার রাত ২টার দিকে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিয়ে বাইরে বের হলে স্বামী সোহরাব মুন্সী, তার ভাই সবুজ মুন্সী ও স্বপন মুন্সীসহ ৫-৬ জন শারমিনকে অপহরণের চেষ্টা চালায়।

শারমিনের গোঙানির শব্দে পাশের ঘরের সোনা মুন্সীর স্ত্রী বাইরে বের হলে সোহরাব তার স্ত্রীর গলা ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে মৃতভেবে ফেলে রেখে চলে যায়। পরে শারমিনকে উদ্ধার করে সোমবার সকালে মুলাদী হাসপাতালে ভর্তি করে স্থানীয়রা।

মুলাদী থানা পুলিশের ওসি জিয়াউল আহসান বলেন, বিষয়টি শুনেছি। কিন্তু কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।