ছাত্রলীগ সভাপতিকে বহিষ্কারের দাবিতে উত্তাল চবি, শাটল ট্রেন বন্ধ

প্রকাশিত: ১২:৪৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১, ২০১৯ | আপডেট: ১২:৪৪:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১, ২০১৯
ছবি: সংগৃহীত

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের বিজয় ও সিএফসি গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় এলাকাজুড়ে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এর জেরে আজ রোববার ভোরে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবহনের সব শিক্ষক ও স্টাফ বাসের তলায় সুপার গ্লু লাগিয়ে দেওয়ায় বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে।

এদিকে নগরীর বটতলী রেলস্টেশনে অবস্থান করা দুটি শাটল ট্রেনের হোসপাইপ কেটে দেওয়ায় ট্রেন চলাচলও বন্ধ রয়েছে। এ ছাড়া ট্রেনের লোকো মাস্টারকে অপহরণ করার কিছু সময় পর তাকে ছেড়ে দেওয়া হয় বলে জানা গেছে।

চট্টগ্রাম রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল হক রুবেলকে বহিষ্কারের দাবিতে আন্দোলন করছে সংগঠনটির একাংশের নেতাকর্মীরা। এ ঘটনায় ক্যাম্পাসে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটেরও ডাক দিয়েছে তারা।

আন্দোলনকারীদের অভিযোগ, ছাত্রলীগ সভাপতি রুবেল ছাত্র নন। তা ছাড়া গতকাল শনিবার দিবাগত রাতে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষের মূল পরিকল্পনাকারী তিনি।

উল্লেখ্য, শনিবার মধ্যরাতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) শাখা ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ছাত্রলীগের পাঁচ নেতাকর্মী আহত হন।

মধ্যরাতে সোহরাওয়ার্দী হল থেকে এ সংঘাতের এ সূত্রপাত হলে পরে তা আলাওল ও এএফ রহমান হলেও ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া চলে। এ ছাড়াও এক রাউন্ড গুলি বর্ষণের শব্দও শোনা যায় বলে জানা গেছে।