‘ছাত্রীর শরীরের’ বিভিন্ন স্থানে হাত, শিক্ষক বরখাস্ত

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৩:৫৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৮ | আপডেট: ৩:৫৩:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৮

টিবিটি দেশজুড়েঃ পঞ্চগড়ের বোদা পাইলট গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে একই প্রতিষ্ঠানের সহকারী শিক্ষক আবদুর রাজ্জাক রাজুকে ছয় মাসের জন্য সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

একই সঙ্গে শ্রেণিকক্ষ ও বিদ্যালয়ে প্রবেশ নিষিদ্ধ করাসহ ওই শিক্ষককে সাত দিনের মধ্যে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে। অভিযোগ তদন্তে পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে।

গত ২৬ আগস্ট বোদা পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আবদুর রাজ্জাক রাজুর বোদা থানাপাড়ার বাসায় প্রাইভেট পড়তে গিয়ে ওই শিক্ষার্থী শ্লীলতাহানির শিকার হন বলে অভিযোগ ওঠে।

লিখিত অভিযোগে জানা গেছে, বোদা পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আবদুর রাজ্জাক রাজুর বোদা থানাপাড়ার বাসায় প্রাইভেট পড়ত ওই ছাত্রী। গত ২৬ আগস্ট প্রতিদিনের মতো সেদিনও প্রাইভেট পড়তে যায় ওই ছাত্রী। সেখানে অন্য সহপাঠীরা না আসায় ওই ছাত্রী বাড়ি চলে আসতে চাইলে শিক্ষক তাকে বসতে বলেন।

তখন ওই শিক্ষকের বাসায় কেউ না থাকায় এক পর্যায়ে ভুক্তভোগী ছাত্রীকে জড়িয়ে ধরে কুপ্রস্তাব দেন এবং জোরপূর্বক তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে হাত দেন তিনি। এক পর্যায়ে সেখান থেকে বের হয়ে বাসায় গিয়ে বিষয়টি তার মাকে জানায় ওই ছাত্রী।

এ ঘটনায় অভিভাবকরা ওই ছাত্রীকে নিয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রবিউল আলম সাবুলের কাছে গিয়ে বিষয়টি জানান এবং একটি লিখিত অভিযোগ দেন।

ভুক্তভোগী ওই ছাত্রী বলেন, ‘রক্ষক হয়ে ভক্ষকের মতো আচরণকারী ওই শিক্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।’

শিক্ষক আবদুর রাজ্জাক রাজু অভিযোগ অস্বীকার করে বলে, ‘আমি কিছুই করিনি। আপনারা প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে কথা বলেন।’

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রবিউল আলম সাবুলের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি লিখিত অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করেন। তিনি বলেসন, ‘অভিযোগ পাওয়ার পর বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি ও শিক্ষক মণ্ডলীর জরুরি সভা আহ্বান করি।

সভায় তাকে (আবদুর রাজ্জাক) ছয় মাসের জন্য সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। ৫ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হযেছে। তদন্ত শেষে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

এ বিষয়ে বোদা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ মাহমুদ হাসান জানান, ‘এ সংক্রান্ত একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’