জাকির নায়েক সীমা অতিক্রম করছেন : মাহাথির মোহাম্মদ

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৮:০৪ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৮, ২০১৯ | আপডেট: ৮:০৪:অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৮, ২০১৯

বিতর্কিত ধর্মপ্রচারক ও ইসলামি বক্তা জাকির নায়েক মালয়েশিয়ায় রাজনৈতিক বক্তব্য দিয়ে সীমা অতিক্রম করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ।

রবিবার (১৮ আগস্ট) তিনি বলেন, ‘মালয়েশিয়ায় জাকির নায়েকের রাজনৈতিক বক্তব্য দেওয়া থেকে বিরত থাকা উচিত। সংখ্যালঘুদের নিয়ে সাম্প্রদায়িক বক্তব্য দিয়ে তিনি সীমা ছাড়িয়েছেন।’

মালয়েশিয়ার সংবাদমাধ্যম মালয়েশিয়া ইনসাইটের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে। ভারত থেকে পালিয়ে মালয়েশিয়ায় আশ্রয় নেয়া জাকির নায়েকের প্রতি অতীতে বেশ কয়েকবার নিজের সমর্থন জানালেও রোববার তার উল্টো বলেছেন মাহাথির মোহাম্মদ।

এক সংবাদ সম্মেলনে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, সাম্প্রতিক বর্ণবাদী মন্তব্যের মাধ্যমে জাকির নায়েক অনেক দূরে চলে গেছেন। আমি জানি না, কে তাকে মালয়েশিয়ায় স্থায়ী বসবাসের মর্যাদা দিয়েছেন। তবে রাজনীতি থেকে তার দূরে থাকা উচিত। তিনি প্রচার করতে পারেন, তিনি ইসলামের প্রচার করতে পারেন এবং আমরা তাকে থামাতে যাচ্ছি না। কিন্তু তাকে অবশ্যই রাজনীতি নিয়ে কথা বলা বন্ধ করতে হবে। চীনা এবং ভারতীয়দের নিজ দেশে ফিরে যেতে বলাটা রাজনৈতিক। তিনি বর্ণবাদী মানসিকতা উসকে দিচ্ছেন…পুলিশ তদন্ত করছে।’

কুয়ালালামপুর কনভেনশন সেন্টারে আয়োজিত ওই সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘মালয়েশিয়ায় আমাদের আইনের শাসন আছে এবং আমরা এটার চর্চা করবো।’

গত সপ্তাহে এক অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করতে গিয়ে মালয়েশিয়ায় বসবাসরত ভারতীয় হিন্দুদের দেশের প্রতি আনুগত্য নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন মুম্বাইয়ে বেড়ে ওঠা জাকির নায়েক। এছাড়া মালয়েশিয়ায় বসবাসরত চীনাদেরও নিজ দেশে ফেরত যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন তিনি। তার এই বিতর্কিত মন্তেব্যর পরও গত বুধবার মাহাথির মোহাম্মদ বলেন, মালয়েশিয়ায় অবস্থান করতে পারবেন বিতর্কিত এই প্রচারক।

তিনি বলেছিলেন, জাকির নায়েককে ফেরত পাঠানো হবে না। কারণ ভারতে তার জীবন ঝুঁকির মুখে পড়তে পারে। সেখানে তার বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে উসকানি দেয়ার অভিযোগে মামলা বিচারাধীন রয়েছে। তাকে ফেরত পাঠানো হলে খুন করা হবে, যে কারণে তিনি মালয়েশিয়ায়। তবে কোনো দেশ যদি তাকে নেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করে তাহলে আমরা স্বাগত জানাবো।