জাতিগত মুসলিম নিধনের উদ্দেশ্যেই আসামের নাগরিকপঞ্জি: ইমরান খান

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:১৬ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩১, ২০১৯ | আপডেট: ৬:৩৮:অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩১, ২০১৯

জাতিগতভাবে মুসলিমদের নিধনের উদ্দেশ্যেই ভারত সরকার আসামে জাতীয় নাগরিকপঞ্জির (এনআরসি) চূড়ান্ত নাগরিক তালিকা (এনআরসি) প্রকাশ করেছে বলে মন্তব্য করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

আজ (শনিবার) সকালে প্রকাশ হওয়া এনআরসিতে ১৯ লাখ মানুষ বাদ পড়ার পর টুইটারে এক প্রতিক্রিয়ায় তিনি এই মন্তব্য করেছেন।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী টুইটারে লিখেছেন, “মুসলিম নিধনের উদ্দেশ্যেই ভারত সরকার আসামের এই নাগরিকপঞ্জি প্রকাশ করেছে। মোদি সরকার যেভাবে মুসলিমদের জাতিগতভাবে নির্মূল করতে চাইছে এবং এর খবর ভারতসহ আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম যেভাবে আসছে, তা গোটা বিশ্বের জন্য অশনিসংকেত। এই একই উদ্দেশে মুসলিমদের লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করে তারা কাশ্মীরকে অবৈধভাবে দখল করে নিয়েছে।”

উল্লেখ্য, আজ (শনিবার) সকালে অসমের চূড়ান্ত নাগরিক তালিকা প্রকাশ করা হয়। এই তালিকায় বাদ পড়েছে সেখানে বসবাসরত ১৯ লাখ মানুষ। সেই তালিকায় রয়েছেন আসামের দ্বিতীয় শক্তিশালী বিরোধী দলের এক বিধায়কও। ওয়েবসাইটে নিজের নাম দেখতে পাননি অল ইন্ডিয়া ইউনাইটেড ডেমোক্র্যাটিক ফ্রন্টের অনন্ত কুমার মালো।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, যারা নাগরিকপঞ্জির বাইরে রয়েছেন, তারা ফরেনার্স ট্রাইবুনালে আবেদন করতে পারবেন, আবেদনের সময়সীমা ৬০ দিন থেকে বাড়িয়ে ১২০ দিন করা হয়েছে। সমস্ত আইনি প্রক্রিয়া না হওয়া পর্যন্ত, নাগরিকপঞ্জি তালিকার বাইরে থাকা ব্যক্তিদের বিদেশি বলে গণ্য করা হবে না বলে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।