জাহান্নামের দরজা!

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:১১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৮ | আপডেট: ৬:১১:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৮

টিবিটি বিস্ময়কর পৃথিবীঃ জাহান্নামের চৌরাস্তায় আছি কথাটা হরহামেশাই বলি। দরজাটা অচেনা বলেই হয়তো এর চৌরাস্তায় এসে ঘুরপাক খাওয়া হয়। কিন্তু এর দরজাটার ঠিকানা যদি দেওয়া হয় তা হলে বাস্তবে তো নয়ই, কল্পনায়ও কেউ জাহান্নামে যেতে চাইবে না। কারণ এর ভয়াবহতা সম্পর্কে সবাই যথেষ্ট শুনেছে।

তবে কেউ যদি জীবিত অবস্থায় সত্যিই ‘জাহান্নামে’ যেতে চান, তাকে আপাতত তুর্কমেনিস্তানে পাঠিয়ে দিন। সেখানে জাহান্নাম তার দরজা খুলে অপেক্ষা করছে।

তুর্কমেনিস্তানের রাজধানী আশগাবাদ থেকে প্রায় ২৬০ কিলোমিটার উত্তরে অবস্থিত মরুভূমিতে বিশাল একটি গর্ত রয়েছে। এটি ২৩০ ফুট ব্যাস ও ৬৫ ফুট গভীর। গত চল্লিশ বছরেরও বেশি সময় ধরে এই গর্তের আগুন নেভে না। ১৯৭১ সালের কথা।

কয়েকজন সোভিয়েত ভূতত্ত্ববিদ খনিজ তেলের সন্ধানে কারাকুমের মরু অঞ্চলে অভিযান চালান। কারণ এই এলাকায় প্রচুর তেল ও প্রাকৃতিক গ্যাস মজুদ রয়েছে।

তবে কিছুদিনের মধ্যেই সেই অভিযাত্রীরা টের পান, তারা ভূগর্ভস্থ গ্যাসের এক ভাণ্ডারের ওপর বসে আছেন। এ সময় মরুভূমির কয়েক জায়গায় গর্ত খুঁড়ে ভূগর্ভে থাকা গ্যাসগুলো উন্মুক্ত করেন তারা। ঠিক তখন থেকেই সেখানে আগুন জ্বলতে শুরু করে।

দেশটির কারাকুম মরুভূমি থেকে কয়েক কিলোমিটার দূরে অবস্থিত দেরওয়াজ গ্রাম থেকে এটাকে দেখা যায়। এর আগুনের ভয়াবহতা দেখেই এটাকে ‘জাহান্নামের দরজা’ হিসেবে আখ্যা দেওয়া হয়। তবে জায়গাটকে অনেকে ‘শয়তানের সুইমিং পুল’ বলেও জানে।

২০১০ সালের এপ্রিলে দেশটির রাষ্ট্রপতি গুরবাঙ্গুলি বারদিমোহামেদো জায়গাটি পরিদর্শন করে তা বন্ধ করার আদেশ দেন। তবে সেই আদেশ কার্যকর হয়নি। এখনো সেখানে বছরের পর বছর দাউ দাউ করে আগুন জ্বলছেই।