টাকা চাইতেই তিনি বললেন আমি র‌্যাব কর্মকর্তা

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:৪১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৮ | আপডেট: ৭:৪১:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৮

বরিশাল নগরীর সদর রোডের কাকলী হল মোড় এলাকার স্যামসাং শোরুম থেকে র‌্যাবের কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে ২১ হাজার ৯০০ টাকা মূল্যের স্মার্টফোন নিয়ে যান মো. আতিকুল ইসলাম মাসুম (৪২)।

স্মার্টফোন নিয়ে যাওয়ার সময় শোরুমের মালিক টাকা চাইতেই আতিকুল ইসলাম মাসুম বলেন, আমি র‌্যাবের কর্মকর্তা।  এ ঘটনায় শোরুমের মালিক র‌্যাবের কাছে লিখিত অভিযোগ দেন।

অভিযোগ পাওয়ার পর অনুসন্ধানে নামে র‌্যাব। তবে এই নামে র‌্যাবের কোনো কর্মকর্তা কিংবা কোনো সদস্যের নাম না থাকায় বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে নিয়ে তদন্ত শুরু করে র‌্যাব-৮ এর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। সেই সঙ্গে ওই শোরুমের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে আতিকুল ইসলাম মাসুমকে ধরতে অভিযানে নামে র‌্যাব। একপর্যায়ে প্রযুক্তির সহায়তায় শনিবার দুপুরে নগরীর রূপাতলী এলাকায় অভিযান চালিয়ে মাসুমকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারের পর র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে মাসুম জানান, দীর্ঘদিন ধরে র‌্যাব ও প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নাম ব্যবহার করে বিভিন্ন ধরনের প্রতারণা করে আসছেন তিনি। গ্রেফতার আতিকুল ইসলাম মাসুম পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার সিংরাকাঠী গ্রামের মো. নূর মোহাম্মদের ছেলে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বরিশাল র‌্যাবের সিনিয়র সহকারী পরিচালক মো. হাছান আলী বলেন, গত ২২ সেপ্টেম্বর নগরীর সদর রোডের কাকলী হল মোড় এলাকার স্যামসাং শোরুম থেকে র‌্যাব কর্মকর্তা পরিচয়ে টাকা না দিয়ে গ্যালাক্সি জে-৬ মডেলের একটি মোবাইল নিয়ে যায় মাসুম। ওই মোবাইলের মূল্য ২১ হাজার ৯০০ টাকা। এ ঘটনায় শোরুমের মালিক র‌্যাবের কাছে লিখিত অভিযোগ দেন। পরে ওই দোকানের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে প্রতারককে শনাক্ত করা হয়। শনিবার দুপুরে তাকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। এ সময় তার কাছ থেকে মোবাইলটি উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় র‌্যাবের ডিএডি মো. আল-মামুন শিকদার বাদী হয়ে কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি মামলা করেছেন বলে জানান সিনিয়র সহকারী পরিচালক মো. হাছান আলী।