টিকটক বন্ধে যাঁরা কাজ হারালেন, তাঁদের কী হবে: নুসরাত

টিবিটি টিবিটি

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:১৮ অপরাহ্ণ, জুলাই ২, ২০২০ | আপডেট: ৭:১৮:অপরাহ্ণ, জুলাই ২, ২০২০

সম্প্রতি ৫৯টি চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে কেন্দ্র। এর মধ্যে ভারতের বাজারে যে অ্যাপটির জনপ্রিয়তা অত্যাধিক বেশি তা হল ‘টিকটক’। টলিউডের অনেক সেলেবকেই অ্যাপটি ব্যবহার করতে দেখা যেত। আর এদের মধ্যে অন্যতম হলেন দুই সাংসদ, অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী ও নুসরত জাহান।

টিকটক অ্যাপে মিমি চক্রবর্তী ও নুসরত জাহান দুজনেই বেশ জনপ্রিয় ছিলেন। টিকটক বন্ধে কী বলছেন তাঁরা?

বসিরহাটের সাংসদ তথা অভিনেত্রী নুসরত জাহান এ বিষয়ে টুইটারে লেখেন, ”অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়ার মতোই টিকটক আমার কাছে একটি প্লার্টফর্ম ছিল। যাঁর মাধ্যমে ভক্তদের সঙ্গে আমি সংযোগ রাখতাম। যদি দেশের স্বার্থে এই অ্যাপ বন্ধ করা হয়, তাহলে আমি তাতে সমর্থন করছি।”

তবে জাতীয় স্বার্থে এই অ্যাপকে নিষিদ্ধ করা নিয়ে কেন্দ্রের সিদ্ধান্তে সমর্থন জানালেও কিছু প্রশ্ন তুলেছেন সাংসদ অভিনেত্রী। তাঁর প্রশ্ন, এটা কি কোনও কৌশলগত সিদ্ধান্ত? চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধ হওয়ার কারণে যাঁরা কাজ হারালেন তাঁদের এখন কী হবে? তাঁদের নিয়ে সরকার কী ভাবছে? ভারতে যে চীনা সংস্থাগুলি ইতিমধ্যেই বিনিয়োগ করেছে সেগুলির কী হবে? প্রধানমন্ত্রীর চীন সফর থেকে কী পেয়েছি আমরা? এটা একেবারে হঠকারী সিদ্ধান্ত। যে সমস্ত মানুষের রুজিরুটি চীনা দ্রব্য আমদানি-রফতানির সঙ্গে জড়িত, তাঁরাই বা কী করবেন?”

যদিও টিকটক অ্যাপ নিষিদ্ধ করার বিষয়ে মন্তব্যে নারাজ মিমি চক্রবর্তী। তাঁর কথায়, টিকটকের থেকেও দেশে আলোচনা করার মতো আরও অনেক বিষয় রয়েছে।