টিনেজারদের মানসিক স্বাস্থ্য নষ্ট করে দিচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়া

প্রকাশিত: ৯:২৬ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৭, ২০২১ | আপডেট: ৯:২৯:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৭, ২০২১

বর্তমান সময়ে সময় কাটানো ও বিনোদনের অন্যতম মাধ্যম হলেও অতিরিক্ত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সময় কাটানো টিনেজারদের জন্য বিপজ্জনক বলছে একটি গবেষণা। এডুকেশন পলিসি ইন্সটিটিউট এবং দ্যা প্রিন্স’স ট্রাস্টের গববেষণায় বলা হচ্ছে, অতিরিক্ত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ব্যবহার শিশু-কিশোরদের মানসিক স্বাস্থ্য নষ্ট করে দেয়।

গবেষণায় আরও বলা হয়েছে, প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়ার বয়সী শিশুদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করা অত্যন্তত ঝুঁকিপূর্ণ।

এর ফলে ১৪ বছর বয়সে ছেলে ও মেয়ে উভয়ের সুস্বাস্থ্য নষ্ট হয় এবং মেয়েদের ক্ষেত্রে এর পরেও ঝুঁকিপূর্ণ কিছু ঘটতে পারে, গবেষণায় ফলাফল এ কথাও বলা হয়েছে।

গবেষণায় বলা হয়েছে, প্রতি তিনজনের মধ্যে একজন মেয়ে ১৪ বছর বয়সে নিজের চেহারা ও শরীর নিয়ে অসন্তুষ্টিতে ভোগে। অবশ্য প্রাথমিক বিদ্যালয় শেষ করতে করতে এই সংখ্যা প্রতি সাত জনের মধ্যে একজনে নেমে আসে।

২০১৭ সালের পর থেকে কিশোর-কিশোরীদের মধ্যে মানসিক অসুস্থতার প্রবণতা প্রতি নয় জনে একজন থেকে প্রতি ছয় জনে একজনে উঠে এসেছে।

কৈশরে উভয় লিঙ্গের মানসিকভাবে সুস্থ থাকার পরিমাণ কমে এসেছে। গবেষণার প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, বিশেষ করে মেয়েদের ক্ষেত্রে এই পরিস্থিতি বেশি খারাপ।

কিন্তু মেয়েদের ক্ষেত্রে বয়স বাড়তে থাকলে পরিস্থিতি কিছুটা ভালো হয়। কিন্তু ছেলেদের ক্ষেত্রে মানসিক অসুস্থতার প্রবণতা কমার পরিবর্তে বাড়তে থাকে।

সূত্র: ২৪ লাইভ নিউজ।