ট্যুরিজম মিডিয়া ফেলোশিপ পেলেন ইনকিলাবের হাসান সোহেল

প্রকাশিত: ৭:৪৭ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৯ | আপডেট: ৭:৪৯:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৯

ট্যুরিজম মিডিয়া ফেলোশিপ-২০১৯ পেয়েছেন দৈনিক ইনকিলাবের স্টাফ রিপোর্টার মাইনুল হাসান সোহেল (হাসান সোহেল)। দেশের পর্যটন শিল্পের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ প্রতিবেদনের জন্য তিনি এ ফেলোশিপ পান।

বুধবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের সহায়তায় এভিয়েশন অ্যান্ড ট্যুরিজম জার্নালিস্ট ফোরাম অব বাংলাদেশ (এটিজেএফবি) আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে ফেলোশিপ দেওয়া হয়। এ বছর মোট ১০ জন সাংবাদিককে ট্যুরিজম ফেলোশিপ দেওয়া হয়।

হাসান সোহেলের হাতে এ সংক্রান্ত সনদ এবং পুরস্কার তুলে দেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রণালয়ের সচিব মহিবুল হক, বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. ভুবন চন্দ্র বিশ্বাস, অ্যাভিয়েশন অ্যান্ড ট্যুরিজম জার্নালিস্ট ফোরাম বাংলাদেশের সভাপতি নাদিরা কিরণ, সাধারণ সম্পাদক তাজিম আনোয়ার প্রমুখ।

এছাড়াও ট্যুরিজম মিডিয়া ফেলোশিপ-২০১৯ পেয়েছেন দ্য ফিনান্সিয়াল এক্সপ্রেসের সিনিয়র রিপোর্টার কামরুন নাহার, দৈনিক সমকালের কামরান সিদ্দিকী, বিটিভির খালিদ আহসান, বাংলানিউজের মফিজুল সাদিক, ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনের আশিক হোসেন, এসএ টিভির এম এম বাদশাহ, চ্যানেল ২৪-এর মাহফুজ কামাল, মাই টিভির রাকিব হাসান ও বার্তা ২৪-এর সেরাজুল ইসলাম সিরাজ। এ সময় ফেলোশিপপ্রাপ্তদের হাতে সনদ ও ৬০ হাজার টাকার চেক তুলে দেওয়া হয়।

হাসান সোহেল ‘পর্যটনের অপার সম্ভাবনা ঐতিহাসিক ধর্মীয় স্থান’, ‘পর্যটক আকর্ষণে নেই বিপনন ব্যবস্থা’, এবং ‘সম্ভাবনার নতুন দুয়ার সমুদ্র পর্যটন’ শীর্ষক প্রতিবেদনের জন্য ফেলোশিপের জন্য মনোনীত হন।

বক্তারা বলেন, দেশের পর্যটনকে এগিয়ে নিতে প্রয়োজন সকলের সমন্বিত উদ্যোগ। একই সঙ্গে দেশের পর্যটন বিকাশে অন্যতম বাধা সঠিক পরিকল্পনার অভাব। পাশাপাশি যোগাযোগ ব্যবস্থার সমস্যা, সঠিক পরিসংখ্যানের অভাব, মন্ত্রণালয় ও ট্যুরিজম বোর্ডের মধ্যে সমন্বয়ের অভাব। তবে অনুষ্ঠানে জানানো হয়, পর্যটন সেক্টরের উন্নয়নে সরকার পর্যটন মাস্টার প্ল্যান করার উদ্যোগ নিয়েছে। আগামী ৭ অক্টোবরের মধ্যে এই বিষয়ে কাজ করতে ফার্মকে ওয়ার্ক অর্ডার দেয়া হবে।