ঢাকা শহরেই এখন উন্নত বিশ্বের মতো সুযোগ-সুবিধা : শিল্পমন্ত্রী

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: 8:08 PM, December 14, 2019 | আপডেট: 8:08:PM, December 14, 2019

ঢাকা শহরে যারা বাস করেন, তারা ভাগ্যবান বলে মন্তব্য করেছেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন। তিনি বলেন, আপনারা যারা ঢাকায় বাস করেন, তারা এতো ভাগ্যবান যে, এখন ঢাকা শহরেই উন্নত বিশ্বের নগরের মতো নাগরিক সুযোগ-সুবিধা পাচ্ছেন। ঢাকা দেখতে এখন বিদেশের মতো, দেখলে কতো ভালো লাগে।

শনিবার (১৪ ডিসেম্বর) দুপুর সোয়া ১টায় রাজধানীর গুলশান লেক পার্কে মহান বিজয় দিবস ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানে জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশ হেরিটেজ ক্রাফট ফাউন্ডেশনের উইন্টার কার্নিভালের দ্বিতীয় দিনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, আমাদের সরকারের প্রতিশ্রুতি ছিলো গ্রামকে শহর বানিয়ে দেবো, আমরা সেটা করেছি। আজ গ্রামে প্রতিটি বাড়িতে টিভি রয়েছে। স্যাটেলাইটের মাধ্যমে সব চ্যানেল দেখা যায়। রাস্তাঘাটসহ সব সুযোগ-সুবিধা অবকাঠামো উন্নয়ন আমরা করে দিয়েছি। এখন গ্রামেই আপনারা ব্যবসা-বাণিজ্য করছেন। গ্রামের নারীরা এখন গার্মেন্টসে কাজ করছেন। এটা সরকারের কারণেই হয়েছে।

নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন বলেন, আমরা যারা বিভিন্ন কাজে বিদেশে যাই, বিদেশিরা আমাদের দিকে তাকিয়ে থাকে, তারা উদগ্রীব হয়ে বলে, তোমাদের উন্নয়নের জাদুটা কোথায়। কিছুদিন আগে চীনে গেলাম, তারা আমাকে পেয়ে জানতে চাইলো উন্নয়নের জাদু। আগে মানুষ শহর দেখতে বিদেশ যেতো, এখন কাজ ছাড়া যায় না। এখন ঢাকা শহরই বিদেশের মতো।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, উন্নয়নের ফলে গড় আয়ু বেড়েছে, এখন আমাদের গড় আয়ু ৭৩, জাপানের চেয়ে বেশি। জাপানিরা সন্তান পায় না, তারা কষ্টে থাকে। অথচ আমাদের গড় আয়ু বাড়লেও সহজেই সন্তান পাই, এসবই আমাদের এগিয়ে চলা, আর এটা সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর কারণেই।

শিল্পমন্ত্রী আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু যে স্বপ্ন দেখেছিলেন, একটি উন্নত দেশের স্বপ্ন, অর্থনৈতিক মুক্তির, সেটা তারই কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাস্তবায়ন করে চলছেন। শেখ হাসিনা আমাদের জন্য আলোকবর্তিকা। নারীর উন্নয়নে কাজ করছেন।

বাংলাদেশ হেরিটেজ ক্রাফট ফাউন্ডেশনের সভাপতি টুটলী রহমানের সভাপতিত্বে সম্মানিত অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশে নিযুক্ত নেদারল্যান্ডসের রাষ্ট্রদূত হ্যারি ভারওয়েই। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ফেয়ার গ্রুপের উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব.) হামিদ আর চৌধুরী।