‘তুই’ বলে সম্বোধন করায় হত্যা

প্রকাশিত: ১২:১৫ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৮ | আপডেট: ১২:১৫:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৮

সিনিয়র জুনিয়র দ্বন্দ্বের জেরে রাজধানীর দক্ষিণখানে কিশোর মেহেদি হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলার প্রধান আসামিসহ ৮ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের গোয়েন্দা উত্তর বিভাগ। এসময় প্রধান আসামি সাইফের কাছ থেকে ১টি সুইচ গিয়ার চাকু উদ্ধার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- সাইফ, মনির, আরাফাত, সাইফুল, মেহেরাব, আপেল, সিফাত ও সোহেল।

রোববার দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ডিএমপি উপ-কমিশনার মো. মাসুদুর রহমান বলেন, ‘উত্তরার দক্ষিণখানে দু’টি কিশোর গ্রুপ সক্রিয়ভাবে কাজ করছে। একটি আরাফাত গ্রুপ, অন্যটি শান্ত গ্রুপ। এলাকায় আধিপত্য বিস্তার, সিনিয়র জুনিয়র দ্বন্দ্বে শান্ত ও আরাফাত গ্রুপের মধ্যে প্রায়ই মারামারির ঘটনা ঘটতো। এরই মধ্যে শান্ত গ্রুপের মেহেদী না জেনে আরাফাত গ্রুপের এক বড় ভাইকে ‘তুই’ বলে সম্বোধন করলে তাৎক্ষণিকভাবে তাদের মাঝে মারামারি শুরু হয়। এরই জের ধরে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে ৩১ আগস্ট স্থানীয় সংসদ সদস্যের একটি পথসভার মিছিল নিয়ে আসে শান্ত গ্রুপের ভিকটিম মেহেদী, নাজমুলসহ আরো অনেকেই। সেখানে শত শত মানুষের মাঝে প্রকাশ্যে তাদের ওপর হামলা চালায় আরাফাত গ্রুপের সদস্যরা। এ সময় ভিকটিম মেহেদীর বাম হাতে ও বুকের বাম পাশে সুইচ গিয়ার ছুরি দিয়ে আঘাত করলে মেহেদী মারা যায়’।

তিনি আরো বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করেছে। দক্ষিণখান থানার চেয়ারম্যানবাড়ি এলাকায় জিম-জিয়াদ গ্রুপ, শান্ত গ্রুপ ,আরাফাত গ্রুপ, কামাল গ্রুপ সক্রিয় রয়েছে। এই গ্রুপগুলো এলাকায় ছিনতাই, ইভটিজিং হত্যাকাণ্ডসহ নানা ধরনের অপরাধ চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানান উপ-কমিশনার মাসুদুর রহমান।