‘দর্শক এখন যেমন ছবি দেখতে চায় বেপরোয়া ঠিক তেমনই’

প্রকাশিত: ৫:৫১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৫, ২০১৮ | আপডেট: ৫:৫১:অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৫, ২০১৮

এ প্রজন্মের নায়িকা ববি হক। ইন্ডাস্ট্রির অনেক পালাবদলের স্বাক্ষীও। কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছানোর জন্য বন্ধুর পথ পাড়ি দিচ্ছেন। এবারের ঈদে মুক্তি পেয়েছে তার অভিনীত ‘বেপরোয়া’ ছবিটি। গত ২০ আগস্ট ছবিটি সেন্সর ছাড়পত্র পেয়েছে। ববি মনে করেন, দর্শক এখন যেমন ছবি দেখতে চায় ‘বেপরোয়া’ ঠিক তেমনই একটি ছবি।

‘বেপরোয়া’ মুক্তি, চলচ্চিত্র, ক্যারিয়ারসহ অন্যান্য বেশ কিছু প্রসঙ্গ কথা বলেছেন এ অভিনেত্রী।

ঢাকার বাইরে মাত্র একটি প্রেক্ষাগৃহে চার কোটি টাকা বাজেটের ছবিটি মুক্তি পেয়েছে। এ কারণে কিছুটা হতাশ এ নায়িকা। তবে শিগগিরই বড় পরিসরে ছবিটি মুক্তি দেওয়া হবে।

‘বেপরোয়া’ ছবির গানের কিছু অংশের শুটিং বাদ থাকার কারণে তড়িঘরি করে কাজ শেষ করতে হয়েছে। তাই ছবিটির প্রচারে খুব একটা সময় পাননি ববি। তবে যতটুকু সময় পেয়েছেন, খবরটি পৌঁছানোর সর্বোচ্চ চেষ্টাটাই করছেন।

ববি হক বলেন, ‘ছবিটি নিয়ে অনেক আলোচনা হচ্ছে। ছবিটি নির্মাণের সময় থেকেই দর্শকদের বেশ আগ্রহের কেন্দ্রে ছিল। আর এটা একদমই ঈদের ছবি। দর্শক এখন যেমন ছবি দেখতে চায় বেপরোয়া ঠিক তেমনই।’

ববির ভাষ্য, ‘ঈদে ছবি মুক্তি পেলে খুব চিন্তাও হয়, আবার উত্তেজনাও থাকে। ছবিটি দর্শকদের ঈদের আনন্দ দ্বিগুণ করে দেবে।’

ববি মনে করেন এখন দর্শকদের প্রতিক্রিয়া অল্প সময়েই বোঝা যায়। বিশেষ করে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে। ‘অনেকটা বিরতির পর আমার ছবি মুক্তি পাচ্ছে। এই ভালো লাগাটার মানে কিন্তু অন্যরকম। এ ছবিতে যে চরিত্রে অভিনয় করেছি এর আগে এমন কোনো চরিত্র করিনি। সব মিলিয়ে ফ্যামিলি ড্রামা, অ্যাকশন ও রোমান্স সবই আছে।’

এ ছবিতে ববির সহশিল্পী হিসেবে কাজ করেছে জিয়াউল হক রোশান। নায়ক হিসেবে তরুণ। নিজের অবস্থান তৈরি করার দৌড়ে এগিয়ে রয়েছেন। সহশিল্পী রোশান সম্পর্কে ববির মত, ‘ও খুব ভালো কাজ করেছে। এ ছবিতে ওকে পারফেক্ট হিরো হিসেবে দেখব।’

ছবিটি প্রযোজনা করেছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া। তারা জানিয়েছে, তাদের বিজনেস পলিসির অংশ হিসেবে ছবিটি প্রথম সপ্তাহে মাত্র একটি হলে মুক্তি দেওয়া হয়েছে

এর কারণও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের বরাত দিয়ে জানান ববি। তিনি বলেন, ‘একটা ঈদ যাবে, আর জাজের ছবি থাকবে না, তা তো হয় না! সেজন্য একটি হলে মুক্তি দিয়েছে। ঈদের দুই কিংবা তিন সপ্তাহ পর সারাদেশে বেপরোয়া চলবে। তখন কিন্তু ব্যবসায়ের হিসেব পাল্টে যাবে।’

‘প্রত্যেকটা আর্টিস্টের কাজের মধ্যে ভিন্নতা থাকতে হবে। না হলে দর্শক একটা সময় গিয়ে বিরক্ত হয়ে যাবে। সব সময় চেষ্টা করি প্রত্যেকটা ছবিতে মানুষ আমাকে নতুন ববি হিসেবেই দেখুক। আমি এমন কিছু কাজ করতে চাই যেনো মারা যাবার পরও মানুষ আমাকে ভালোবেসে মনে রাখবে।’ যোগ করেন ববি।

ববির কাছে প্রশ্ন ছিল-‘বেপরোয়া’র জন্য ঠিক কেমন প্রস্তুতি নিয়েছিলেন। উত্তরে বলেন, ‘প্রত্যেকটা ছবির চরিত্রের জন্য আলাদা প্রস্তুতি তো থাকেই। এ ছবির ক্ষেত্রেও ব্যতিক্রম ছিল না। রোশানের সঙ্গে কীভাবে নিজের চরিত্রের ম্যাচ করব। সে দিকটাতে বিশেষ খেয়াল রাখতে হয়েছে। কারণ এটা আমাদের প্রথম ছবি।

দিনশেষে দর্শক ভালো বিষয়টাই গ্রহণ করে। মন্দটা বর্জন করে। তাই টেকনিক্যাল ও অন্যান্য বিষয়ে আমাকে মনোযোগি হয়ে বেশ সাবধানতার সাথে পথ চলতে হয়েছে।’

-প্রিয় ডটকম।