দশ টাকার চালে দুর্নীতি, ডিলারের সনদ বাতিল

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:১৭ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮ | আপডেট: ১২:১৭:পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮

টিবিটি দেশজুড়েঃ গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় হত দরিদ্রদের কাছে দশ টাকা কেজি দরে বিক্রির চাল ওজনে কম দেওয়ায় এক ডিলারের সনদ বাতিল করেছে প্রশাসন।

মঙ্গলবার কোটালীপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহফুজুর রহমান সাদুল্লাপুর ইউনিয়নের ডিলার অলিউর রহমান হাওলাদারের ডিলার সনদ বাতিল করেন।

উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা শাহাবুদ্দিন আকন্দ জানান, খাদ্য মন্ত্রণালয়ের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় উপজেলার সাদুল্লাপুর ইউনিয়নে হত দরিদ্রদের জন্য ১০ টাকা কেজি দরে ৬৬০ জন কার্ডধারীর নামে ৩০ কেজি করে চাল বরাদ্দ দেয় সরকার।

তিনি বলেন, ওই ইউনিয়নের ডিলার অলিউর রহমান হাওলাদার ৬৬০ বস্তা চাল উপজেলা খাদ্যগুদাম থেকে উত্তোলন করেন। প্রতি বস্তায় তাকে ৩০ কেজি করে চাল বুঝিয়ে দেওয়া হয়।

“গত রোববার অলিউর সাদুল্লাপুর ইউনিয়নের নৈয়ারবাড়ী বাজারে এ চাল বিক্রি করেন। প্রতি বস্তা থেকে তিনি ৪ থেকে ৭ কেজি চাল নামিয়ে রাখেন।”

চাল ওজনে কম দেওয়াকে কেন্দ্র করে সেখানে গ্রহীতাদের মধ্যে হট্টগোল শুরু হয়। এক পর্যায়ে অবস্থা বেগতিক দেখে ডিলার অলিউর ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিক্রয়কৃত চাল পরিমাপ করে প্রতি বস্তায় ৩০ কেজির স্থলে ২৩ থেকে ২৬ কেজি পাওয়া যায় বলে জানান শাহাবুদ্দিন।

সাদুল্লাপুর ইউনিয়নের পীড়ারবাড়ী গ্রামের হতদরিদ্র কার্ডধারী আরতি বৈদ্য, তামিজ বালা, শান্ত বিশ্বাস, লখন্ডা গ্রামের ফুলমালা মল্লিক, লক্ষ্মী বাড়ৈ অভিযোগ করেন, ৩০ কেজি চালের বস্তার মুখ খোলা পেয়ে তারা পরিমাপ করে দেখেন তাদের চালের বস্তায় ২৪ থেকে ২৬ কেজি করে চাল আছে।

সাদুল্লাপুর ইউপি চেয়ারম্যান ভিম চন্দ্র বাড়ৈ ওই ডিলারের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

কোটালীপাড়া ইউএনও মাহফুজুর রহমান বলেন, চাল ওজনে কম দেওয়ার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ওই ডিলারের সনদ বাতিল করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।