‘দুই ভাই মাঠে নামব, তখন দেখবো কে কত খেলতে পারেন’

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:৫৫ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৮ | আপডেট: ১২:৫৫:পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৮

টিবিটি দেশজুড়েঃ নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান বলেছেন, ওসমান পরিবারকে ধ্বংস করতে দেয়া হবে না। আমরা দুই ভাই (সেলিম ওসমান ও শামীম ওসমান) মাঠে নামব। তখন দেখবো কে কত খেলতে পারেন।

বৃহস্পতিবার (২০ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের ফতুল্লায় নাসিম ওসমান মেমোরিয়াল অ্যামিউজম্যান্ট পার্কে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

সেলিম ওসমান বলেন, ‘কেউ কেউ পেছন থেকে কলকাঠি নাড়ছেন। এসব বন্ধ করেন। আপনারা এখনও সেলিম ওসমানকে দেখেন নাই। অনেক মাফ করেছি, আর মাফ করবো না। আমি ওসমান পরিবারের সবচেয়ে খারাপ ছেলে। পরিবারের মধ্যে বিশৃংখলা সৃষ্টি করবেন না।’

তিনি বলেন, ‘রাজনীতি কী জিনিস আমি তা জানি। আমি সহজে কিছু বলি না। কিন্তু ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে গেলে আমার মতো কঠোর আর কেউ হতে পারে না। সেলিম ওসমান অনেক কিছু জানে। আমার পরিবারকে নিয়ে যারা খেলছেন তারা খেলা বন্ধ করুন। প্রয়োজনে দলীয় নেতাদেরও কৈফিয়ত জারি করতে হবে।’

নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের এই সংসদ সদস্য বলেন, ‘আমি কখনও বলি নাই আমি নির্বাচন করব। আমি নাসিম ওসমানের প্রক্সি দিতে এসেছি। আমি শুধুমাত্র নাসিম ওসমানের জন্য করছি। আমার পরে চতুর্থ পুরুষের আগমন ঘটবে।

আর এজন্য জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এরশাদ বলে গিয়েছিলেন, নারায়ণগঞ্জ হচ্ছে ওসমান পার্টি। কিন্তু কেউ কেউ আমাদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি সৃষ্টি করার জন্য কাজ করছে। নারায়ণগঞ্জের বায়তুল আমান থেকেই স্বাধীনতার স্বপ্ন দেখা হয়েছে। নারায়ণগঞ্জকে ধ্বংস করতে দেয়া হবে না।’

আজমেরী ওসমান সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘আমি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর প্রয়াত নাসিম ওসমানের প্রথম মৃত্যু বার্ষিকীতে আমাদের পরিবারের চতুর্থ প্রজন্ম হিসেবে আমি আজমেরী ওসমানের নাম ঘোষণা করেছিলাম। আজমেরী ওসমানের পর আমাদের আরো প্রজন্ম আছে তার ছেলে আলিফ ওসমান।’

তৃণমূলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘উন্নয়ন করতে এসেছি, উন্নয়ন করতে দেন। প্রধানমন্ত্রীকে ক্ষমতায় আনতে হবে। সময় হলে সবকিছু দেখতে পারবেন। নমিনেশন দিলে আমি সেলিম ওসমানই দিব। আপনারা সবাই আমার পরিবারের সদস্য। এই খোকন সাহা, বাদল, দিপু আমারই নির্বাচন করেছে এবং আগামীতেও তারাই আমার নির্বাচন করবে।

কারণ তাদের সঙ্গে ওসমান পরিবারের রক্তের সম্পর্ক রয়েছে। তারা সকলেই আমার সন্তানের মতো। ছোট ভাই। কিন্তু তারা কনফিউশনে রয়েছে, আমি নির্বাচন করবো কি করবো না। আপনারা শুধু আমার জন্য দোয়া করবেন, আল্লাহ যেন আমাকে হায়াত দান করেন। আল্লাহ হায়াত দিলে আমি সংসদ সদস্য হব এবং আপনাদের সকল ইচ্ছা পূরণ করব।’