দুর্ঘটনার শিকার অসহায় দিনমজুরের পাশে দাঁড়ালো যশোর স্টেডিয়ামপাড়া কমিউনিটি পুলিশিং ফোরাম

শহিদ জয় শহিদ জয়

যশোর প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৯:৫৬ অপরাহ্ণ, মে ৫, ২০২১ | আপডেট: ৯:৫৭:অপরাহ্ণ, মে ৫, ২০২১

দুর্ঘটনার শিকার শ্রমজীবী এক যুবককে মানবিক সহযোগিতা করলো যশোর পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড স্টেডিয়ামপাড়া কমিউনিটি পুলিশিং ফোরাম আঞ্চলিক কমিটি। দুর্ঘটনার শিকার দিনমজুর আক্তার হোসেন (২২,স্টেডিয়ামপাড়ার বাসিন্দা। তিনি দুর্ঘটনার শিকার হয়ে দীর্ঘদিন ধরে তিনি অসুস্থ। চিকিৎসার জন্য তাকে এই ৪৫ হাজার টাকা প্রদান করা হয়।

বুধবার সন্ধ্যায় কমিউনিটি পুলিশিং ফোরাম আঞ্চলিক কার্যালয়ে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে মানবিক সহায়তা হস্তান্তর করেন যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ তাজুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ পরিদর্শক (ইনটেলিজেন্স এ্যান্ড কমিউনিটি পুলিশিং) সুমন ভক্ত। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, ৫নং ওয়ার্ড স্টেডিয়ামপাড়া কমিউনিটি পুলিশিং ফোরাম আ লিক কমিটির সভাপতি অ্যাড. বদরুদ্দোজা বদর, এটিএসআই সমাপ্ত বৈরাগী, কমিউনিটি পুলিশিং ফোরাম আ লিক কমিটির সহসভাপতি আবুল কালাম আজাদ লিল্লু, সাধারণ সম্পাদক মো. হায়াতুজ্জামান মুকুল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. ফেরদৌস আহমেদ বাবু, দপ্তর সম্পাদক মুয়িদ হোসেন সুমন, প্রচার সম্পাদক আহম্মেদ উল্লাহ তোহা, কোষাধ্যক্ষ ফিরোজ আহমেদ, সদস্য গোলাম মোর্শেদ লিন্টু, শেখ তৌফিক ইকবাল, মো. জলিলুর রহমান, মো. বজলুর রহমান, মোজাফফর হোসেন টিপু, সুজা উদ্দিন আহমেদ খান, শামীম হোসেন মিঠু, উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য ইঞ্জিনিয়ার নাজিম উদ্দিন, তাহাজ্জুত হোসেন মোল্লা, মো. মোসাদ্দেক, আবুল কালাম আজাদ, মো. নুরুল হক প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ওসি তাজুল ইসলাম স্টেডিয়ামপাড়া কমিউনিটি পুলিশিং ফোরাম আ লিক কমিটির এই মানবিক উদ্যোগের প্রশংসা করেন এবং তিনি নিজেও অসহায় দিনমজুরকে তাৎক্ষণিক দুই হাজার টাকা প্রদান করেন। একইসাথে তিনি অন্যান্য এলাকার পুলিশিং কমিটিগুলোকেও মানবিক কর্মকান্ডে অংশ গ্রহণের আহ্বান জানান।

প্রসঙ্গত, এই আগেও স্টেডিয়ামপাড়া কমিউনিটি পুলিশিং ফোরাম আ লিক কমিটির পক্ষ থেকে দুর্ঘটনার শিকার আব্দুর রাজ্জাক কলেজের আয়া রাবেয়া খাতুনকে ১৬ হাজার টাকা, পাইপমিস্ত্রি আলামিনের ছেলে ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত ইয়াসিনকে ৮০ হাজার, আলসারের রোগী আহমেদকে ১৭ হাজার টাকা, লন্ড্রিদোকানি সলেমানকে হার্টের চিকিৎসার জন্য ৩২ হাজার টাকা, দিনমজুর শাহাবুদ্দিনের পায়ের চিকিৎসার জন্য ১৩ হাজার ও বাসারের ছেলে হত্যাকান্ডের শিকার আলামিনের দোয়া মাহফিলের জন্য ২৫ হাজার টাকা প্রদান করা হয়। প্রথম করোনাকালীন সময়ে গরীব ও অসহায় ১২০ পরিবারকে ৮০ হাজার টাকার চাল, ডাল, তেল, আলুসহ বিভিন্ন দ্রব্যাদি প্রদান করা হয়।

এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে এই কমিটি অসহায়, দরিদ্র মানুষের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে।