দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা শ্রীমঙ্গলে

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:৪৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৭, ২০২১ | আপডেট: ১২:৪৯:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৭, ২০২১

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৭ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

তাপমাত্রা নিচে নামার কারণে চায়ের রাজধানীখ্যাত শ্রীমঙ্গলে বাড়ছে শীতের তীব্রতা। এর পাশাপাশি বইছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। শীতের এ তীব্রতার ফলে নিম্নআয়ের ছিন্নমূল মানুষের দুর্ভোগ বেড়েছে।

রোববার সকাল ৯টায় সারা দেশের মধ্যে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় শ্রীমঙ্গলে। এই তাপমাত্রা গত ২০ ও ২৯ ডিসেম্বর ৭ দশমিক ৩ ডিগ্রিতে নেমেছিল বলে আবহাওয়া অফিসসূত্রে জানা যায়।

শ্রীমঙ্গল আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনিসুর রহমান জানান, সকাল ৯টায় শ্রীমঙ্গলের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৭ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এর আগে গত ২০ ও ২৯ ডিসেম্বর ৭ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা ছিল। এটিই চলতি শীত মৌসুমে শ্রীমঙ্গলের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। সেই সঙ্গে উপজেলাজুড়ে মৃদু শৈতপ্রবাহ শুরু হয়েছে। এই মৃদু শৈত্যপ্রবাহের কারণেও শীত বেড়েছে। কয়েক দিনের মধ্যে শীত আরও বাড়বে বলে তিনি জানান।

এদিকে শ্রীমঙ্গলে শীতের তীব্রতা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে স্বল্প আয়ের ছিন্নমূল মানুষের দুর্ভোগ বেড়েছে। কনকনে ঠাণ্ডায় সকাল ১০টা পর্যন্ত শহর ও আশপাশের এলাকায় ঘন কুয়াশায় আচ্ছন্ন ছিল। শীতের হাত থেকে রেহাই পেতে শহরের পুরনো গরম কাপড়ের কেন্দ্র সাইফুর রহমান মার্কেটে মানুষের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবার পরিকল্পনা কর্মরত ডা. সাজ্জাদ হোসেন চৌধুরী জানান, ঠাণ্ডাজনিত নানা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বয়স্ক ও শিশু রোগীদের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

গত সপ্তাহে এক রাতেই ২০ জন শিশু ঠাণ্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়। আমাদের প্রস্তুতি ও সতর্কতা রয়েছে বলে তিনি জানান।