দ্বিতীয় সেরা করদাতা সাবেক যোগাযোগ মন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:৪১ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৭, ২০১৯ | আপডেট: ১০:৪১:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৭, ২০১৯
সাবেক যোগাযোগমন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন। ফাইল ছবি

সাবেক যোগাযোগ মন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন বরাবরের মতো এবারও জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সেরা করদাতা তালিকায় রয়েছেন। ব্যবসায়ী শ্রেণিতে তিনি এবার সেরা দ্বিতীয় নির্বাচিত হয়েছেন।

ব্যবসায়ী শ্রেণিতে সেরা করদাতা তালিকার প্রথমে অবস্থান করছেন হাকিমপুরী জর্দা ব্যবসায়ী মো. কাউছ মিয়া। সেরা দ্বিতীয় হন সাকো ইন্টারন্যাশনালের সৈয়দ আবুল হোসেন।

আর সিনিয়র সিটিজেন শ্রেণিতে সেরা করদাতা নির্বাচিত হয়েছেন বর্তমান বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী।

বুধবার এনবিআরের প্রকাশিত এবারের সেরা করদাতা তালিকায় নাম উঠেছে ৭৬ ব্যক্তি ও ৬৭ প্রতিষ্ঠানের। আগামী ১৪ নভেম্বর রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সেরা করদাতা ও প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ নির্বাহীদের হাতে করকার্ড তুলে দেওয়া হবে।

এ ছাড়া তালিকায় ক্রিকেট, চলচ্চিত্র ও সংগীতের একঝাঁক তারকাও স্থান করে নিয়েছেন। তাদের মধ্যে আছেন চলচ্চিত্রাভিনেত্রী ফরদিা আখতার পপি ববিতা, নায়ক শাকিব খান, গায়িকা এমপি মমতাজ বেগম, গায়ক তাহসান রহমান খান, ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মর্তুজা, সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবালসহ অনেকে।

আইনজীবী শ্রেণিতে সেরা করদাতার তালিকায় আছেন সাংসদ শেখ ফজলে নূর তাপস, আইনজীবী রফিক-উল-হক।

চিকিৎসকদের মধ্যে সেরা পাঁচ করদাতা হলেন এ কে এম ফজলুল হক, প্রাণ গোপাল দত্ত, এম এ এম মোমেনুজ্জামান, নার্গিস ফাতেমা ও শামসুল আরেফিন।

এক বছর মেয়াদি এই করকার্ড পাওয়া ব্যক্তিরা বিভিন্ন রাষ্ট্রীয় সুবিধা পেয়ে থাকেন। বিমানবন্দরে ভিআইপি লাউঞ্জ ব্যবহার, তারকা হোটেলসহ সব আবাসিক হোটেলে বুকিংয়ে অগ্রাধিকার পান।

কর কার্ডধারী নিজে ও তার স্ত্রী বা স্বামী, নির্ভরশীল সন্তানের চিকিৎসার জন্য সরকারি হাসপাতালে কেবিন পাওয়া অগ্রাধিকার; আকাশ, রেল ও জলপথে সরকারি যানবাহনে টিকিট প্রাপ্তিতে অগ্রাধিকার এবং জাতীয় অনুষ্ঠানে এবং সিটি করপোরেশন ও পৌরসভাসহ স্থানীয় সরকার কর্তৃক আয়োজিত সংবর্ধনায় আমন্ত্রণ।