ধর্ষণের মামলা তুলে নিতে ঘুষ দেয়ার কথা স্বীকার রোনালদোর

টিবিটি টিবিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:৫৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২০, ২০১৯ | আপডেট: ৫:৫৯:অপরাহ্ণ, আগস্ট ২০, ২০১৯

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর বিপক্ষে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছিল সেই ২০১০ সালে। তার নয় বছর পর আবারও এই ঘটনা সামন আনে ধর্ষণের অভিযোগকারী সেই নারী। তবে সেই অভিযোগ থেকে মুক্তিও মিলেছে রোনালদোর। লাস ভেগাসের আদালত জানিয়েছে রোনালদোর বিপক্ষে মেলেনি কোনো সুনির্দিষ্ট প্রমাণ।

যুক্তরাষ্ট্রের মডেল ক্যাথরিন মায়োরগা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছিলেন ২০১০ সালে। তবে সেই সময়ে ৩,৭৫,০০০ মার্কিন ডলার বা প্রায় ৩ কোটি ১৭ লক্ষ টাকা দেওয়ার কথা স্বীকার করলেন পর্তুগিজ এই মহাতারকা। ২০১০ সালে সেই মডেলকে এই অর্থ দেওয়া হয়েছিল বলে আদালতে স্বীকার করেছেন রোনালদোর আইনজীবীরা।

২০০৯ সালে লাস ভেগাসের এক হোটেলের ঘরে রোনালদোর দ্বারা ধর্ষিত হন বলে এর আগে অভিযোগ জানিয়ে মামলা করেন মেয়রগা।

সেই অভিযোগ অস্বীকার করে রোনালদো জানান, পারস্পরিক সম্মতিতেই যৌন সম্পর্ক হয়েছিল।

গত জুলাই মাসে লাস ভেগাস আদালত জানায়, পর্তুগিজ ফুটবলারের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগের সপক্ষে যথেষ্ট প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

এর পরেও রোনালদোর বিরুদ্ধে মামলা চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন মেয়রগা। যদিও রোনালদোর আইনজীবীদের দাবি, বিষয়টি আগেই অর্থ লেনদেনের মাধ্যমে দুই পক্ষের মধ্যে মীমাংসা হয়ে গিয়েছে।

সাম্প্রতিক তথ্য বলছে, অর্থ দেওয়ার কথা স্বীকার করেছে রোনালদো শিবির। কিন্তু মেয়রগার আইজীবীরা এখন চাইছেন সেই চুক্তি বাতিল করা হোক।