নওগাঁয় লটারি ড্র অনুষ্ঠানে গুলি: ইউপি চেয়ারম্যানসহ গ্রেফতার ২

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:১০ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২৭, ২০১৮ | আপডেট: ৯:১০:পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২৭, ২০১৮

নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার ঘোষগ্রামে ফুটবল খেলা অনুষ্ঠানে লটারি ড্র লটারি ড্র’র সময় সন্ত্রাসীদের গুলিতে এক স্কুল ছাত্রসহ তিনজন গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। গুলিতে আহত রোবায়েত হোসেনের বাবা উপজেলার ভবানীপুর মন্ডলপাড়া গ্রামের জাবের আলী মন্ডল বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের অভিযুক্ত করে মামলা দায়ের করেন।

এদিকে উক্ত মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রানীনগর উপজেলার গোনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল হাসনাত খান হাসানকে আটক করেছে ডিবি পুলিশ।

জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রোববার সন্ধ্যায় তাকে এ মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে।

এছাড়া পুলিশের হাতে উপজেলার ভবানীপুর গ্রামের মৃত মতিউর রহমানের ছেলে আশিকুজ্জামান রাব্বীকে এ মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

পুলিশী জিজ্ঞাসাবাদে গুলিবর্ষণের বিষয়ে আশিকুজ্জামান রাব্বী গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিতে চাইলে পুলিশ তাকে নওগাঁর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সিরাজুল ইসলামের আদালতে হাজির করেন। আদালতে বিচারকের কাছে আশিকুজ্জামান রাব্বী ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন এবং এই ঘটনায় জড়িতদের নাম প্রকাশ করেন।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক আব্দুল্লাহিল জামান এ মামলা তদন্ত করছেন।

আব্দুল্লাহিল জামান জানান, ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি প্রদানের পর আদালতের নির্দেশে গ্রেফতার আশিকুজ্জামান রাব্বীকে নওগাঁ জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। আদালতে দেয়া ১৬৪ ধারার জবানবন্দিতে আশিকুজ্জামান রাব্বী নিজে এই ঘটনার সাথে জড়িত বলে স্বীকার করেছেন এবং এই গুলিবর্ষণের ঘটনায় জড়িতদের নাম, অস্ত্র সরবরাহকারীসহ পরিকল্পনাকারীদের নাম প্রকাশ করেছেন।

তিনি আরো বলেন, মামলা তদন্ত এবং আসামি গ্রেফতারের স্বার্থে এ মুহূর্তে তাদের নাম প্রকাশ করা সম্ভব হচ্ছে না।

নওগাঁর পুলিশ সুপার ইকবাল হোসেন বলেন, লটারি অনুষ্ঠানে এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণের সময় সেখানে ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হাসনাত খান হাসান উপস্থিত ছিলেন। এজন্য জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে আটক করা হয়েছিল। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে রোববার সন্ধ্যায় উক্ত মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে।

অপরদিকে মাথায় গুলিবিদ্ধ ৬ষ্ঠ শ্রেণি ছাত্র রোবায়েত হোসেন এখনও বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।
উল্লেখ্য, গত শুক্রবার বিকেলে উপজেলার বেতগাড়ী বাজার এলাকার ঘোষগ্রাম কফিলিয়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ঈদ উপলক্ষে স্থানীয় উদয়ন ক্রিড়া সংসদ ফুটবল টুর্নামেন্ট এর আয়োজনে ফাইনাল প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

এ উপলক্ষে স্থানীয় উদয়ন সংসদ থেকে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের বা প্রশাসনের কোনো অনুমতি ছাড়াই শুধুমাত্র স্থানীয়ভাবে ম্যানেজ করে র‍্যাফেল ড্র লটারির আয়োজন করেন তারা। ফুটবল খেলা শেষে ওই রাতেই লটারির ড্র অনুষ্ঠিত হয়। ড্র চলাকালে রাত অনুমান সাড়ে ১১টা নাগাদ অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী অনুষ্ঠানে অতর্কিত হামলা চালিয়ে এলোপাতাড়ি গুলি চালায়। এ সময় চেয়ারে বসে থাকা রোবায়েত হোসেন মাথায় গুলিবিদ্ধ হয়।