নায়ক ওয়াসিমের শেষ হাসি ভাইরাল

টিবিটি টিবিটি

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৪:৪০ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২০, ২০২১ | আপডেট: ৪:৪০:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২০, ২০২১

বাংলাদেশের সিনেমা ইতিহাসে অদ্ভুত সফল এক নাম ওয়াসিম। সাদাকালো যুগে তিনি যেন ধূমকেতুর মতো আবির্ভাব হলেন৷ রোমান সম্রাট জুলিয়াস সিজারের সঙ্গেও মেলানো যায় তার সাফল্যকে৷ এলেন, দেখলেন আর জয় করে নিলেন।

রোমান্টিক, সামাজিক, একশান, ফোক ফ্যান্টাসি; বৈচিত্রময় আমেজ আর গল্পের সিনেমায় তিনি হাজির হয়েছেন। এসব সিনেমা হয়েছে হিট-সুপারহিট। দেড় শতাধিক সিনেমা করা এ নায়কের ৯৫ শতাংশ সিনেমাই ব্যবসা সফল বলে আলোচনা হয় চলচ্চিত্রপাড়ায়। তার উপর টানা ৭০টিরও অধিক সিনেমা হিট। বলাই বাহুল্য এমন সাফল্য একজন অভিনেতার ভাগ্যে সারা পৃথিবীতেই বিরল।

সেই মেগাস্টার চলে গেলেন পৃথিবীর মায়া কাটিয়ে৷ অসুস্থ হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গেল ১৮ এপ্রিল শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন তিনি। সুঠাম দেহের সুদর্শন এই অভিনেতার বিদায়ে চলচ্চিত্র অঙ্গনে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

সিনেমাপাড়ায় বলা হয়ে থাকে, ড্যাশিং হিরো ওয়াসিমের সিনেমা কখনো ফ্লপ করেনি। অর্থাৎ প্রযোজকের মুখে হাসি ফোটাতেন এ অভিনেতা। এবার ভক্তের বুকে বিঁধছে হাসপাতালে ওয়াসিমের শেষ হাসি। মৃত্যুর পর নায়কের শেষ হাসির ছবি ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

গত রোববার (১৮ এপ্রিল) ওয়াসিমের একটি ছবি ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে। ছবিতে দেখা যায় হাসপাতালের বিছানায় হাস্যজ্জ্বোল এ বরেণ্য অভিনেতাকে। অভিনেতার এ শেষ হাসি ক্যামেরাবন্দি করেন উপস্থাপক বুসরা চৌধুরী।

বুসরা জানান, কয়েক দিন আগে হাসপাতালে তিনি ওয়াসিমকে দেখতে যান। ছবি তোলার জন্য অভিনেতাকে তিনি অনুরোধ করেন হাসতে। তার আবদার ফিরিয়ে দেননি এ কিংবদন্তি। অসুস্থতার শত কষ্ট ক্ষণিকের জন্য আড়াল করে হাসিমুখে ক্যামেরার দিকে তাকিয়েছিলেন নায়ক।

দীর্ঘশ্বাস ফেলে বুসরা বলেন, এ ছবিটি যে ওয়াসিম ভাইয়ের জীবনের শেষ ছবি হবে, তা জানতাম না!

১৯৫০ সালের ২৩ মার্চ চাঁদপুর জেলার মতলব উপজেলায় জন্মগ্রহণ করেন এ অভিনেতা। ১৯৭২ সালে এস এম শফী পরিচালিত ‘ছন্দ হারিয়ে গেলো’ সিনেমায় ছোট চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে অভিষেক হয়েছিল নায়ক ওয়াসিমের। ওই সিনেমায় সহকারী পরিচালক হিসেবেও কাজ করেছেন তিনি।

নায়ক হিসেবে তার প্রথম সিনেমা ‘রাতের পর দিন’। মহসিন পরিচালিত এ সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছিল ১৯৭৪ সালে। মুক্তির পর রাতারাতি সুপারস্টার বনে যান ওয়াসিম। এরপর অ্যাকশন এবং ফোক-ফ্যান্টাসি ধাঁচের অনেকগুলো সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি।

২০১০ সাল পর্যন্ত টানা অভিনয় করেছেন ওয়াসিম। শাবানা, ববিতা, কবরী, সুচরিতা, অঞ্জু ঘোষের বিপরীতি অভিনয় করেছেন তিনি। ওয়াসিম অভিনীত উল্লেখযোগ্য সিনেমাগুলো হলো ‘ছন্দ হারিয়ে গেলো’, ‘রাতের পর দিন’, ‘দোস্ত দুশমন’, ‘দ্য রেইন’, ‘রাজদুলারী’, ‘বাহাদুর, ‘মানসী’, ‘সওদাগর’, ‘নরম গরম’ ইত্যাদি।

লম্বা সময় ধরে লাইট-ক্যামেরার সামনে ছিলেন না ওয়াসিম। সিনেমা সংশ্লিষ্ট কোনো অনুষ্ঠানেও দেখা যায়নি তাকে। শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে শয্যাশায়ী ছিলেন এ অভিনেতা। মূলত ব্রেন এবং লিভারের সমস্যায় আক্রান্ত ছেলেন ওয়াসিম। তার উন্নত চিকিৎসা প্রয়োজন ছিল। কিন্তু করোনা মহামারির কারণে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তাকে বিদেশে নিতে পারেনি পরিবার। অসুস্থ হওয়ার পর তাকে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার (১৭ এপ্রিল) রাত সাড়ে ১২টার দিকে মারা যান ওয়াসিম।