নিউজিল্যান্ড সৈকতে আটকে ১০০ তিমির মৃত্যু

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:০২ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৬, ২০২০ | আপডেট: ৫:০২:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৬, ২০২০

নিউ জিল্যান্ডের চ্যাথাম দ্বীপপুঞ্জের সৈকতে আটকা পড়া ৯৭টি তিমি ও তিনটি ডলফিনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশটির কর্মকর্তারা।
চ্যাথাম দ্বীপপুঞ্জ নিউ জিল্যান্ডের পূর্ব উপকূল থেকে প্রায় ৮০০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত।

তিমি ও ডলফিনগুলোর বেশিরভাগই কয়েকদিন আগে আটকা পড়লেও দুর্গম ওই দ্বীপপুঞ্জে যেতে সময় লাগায় উদ্ধার তৎপরতা ব্যাহত হয় বলে কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

বুধবার নিউ জিল্যান্ডের ডিপার্টমেন্ট অব কনজারভেশন (ডিওসি) ৯৭টি পাইলট তিমি ও তিনটি ডলফিনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করে।

মোট ৯৭টি পাইলট তিমি এবং তিনটি ডলফিনের মৃতদেহ উদ্ধার করেন কর্মকর্তারা। ওয়েইটাঙ্গির সৈকতটিতে পৌঁছে অল্পসংখ্যক তিমিকে জীবিত অবস্থায় পান তারা।

তিমিদের মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে এখনো কিছু জানা যায়নি। পাইলট তিমি হচ্ছে নিউজিল্যান্ডের পরিচিত একটি সামুদ্রিক প্রাণী। এটি ছয় মিটার পর্যন্ত লম্বা হতে পারে।

দুই মাস আগে অস্ট্রেলিয়ার তাসমানিয়া সৈকতে ৩৮০ তিমির মৃত্যু ঘটেছিল। এটি বিশ্বের অন্যতম তিমি মৃত্যুর ঘটনা।

একইভাবে দুই বছর আগে নিউজিল্যান্ডের স্টুয়ার্ট দ্বীপে আটকে পড়ে ১৪৫ পাইলট তিমি মারা গিয়েছিল।

এভাবে তিমির মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে বিশেষজ্ঞদের ধারণা, কোনো দলনেতাকে অনুসরণ করতে গিয়ে সবাই একসঙ্গে তীরে উঠে আসে এবং আটকে পড়ে। কারও মতে, সমুদ্রে শিকার করতে গিয়ে তারা ভুল করে সৈকতে উঠে আসে।