নিক্সন খেলতে চান হেফাজতের মামুনুলের সঙ্গে

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:০৫ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ১, ২০২০ | আপডেট: ১১:০৫:পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ১, ২০২০

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের বিরোধিতা করা হেফাজত নেতা মামুনুল হককে ‘সাহস থাকলে মাঠে নেমে খেলার জন্য’ আহ্বান জানিয়েছেন যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ফরিদপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন।

সোমবার দুপুরে চট্টগ্রামের পুরাতন রেলস্টেশন চত্বরে এক সংবর্ধনায় অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

মামুনুল হককে নিক্সন চৌধুরী বলেন, ‘আরে মিয়া তেলাপোকাও পাখি, আর আপনিও মানুষ। যদি সাহস থাকে তাহলে আসেন মাঠে আসেন। মাঠে খেলা হবে। আমাদের ভয় দেখাবে না। আমাদের মাথা থেকে পায়ের আঙুল পর্যন্ত কলিজা।’

মামুনুল যে ভাষায় কথা বলছে, তাতে বিস্মিত নিক্সন চৌধুরী। বলেন, ‘মামুনুল হক কারে চ্যালেঞ্জ করে? শেখ হাসিনারে চ্যালেঞ্জ করে! ব্যাডা কি পাগল? মাথায় কি বুদ্ধি কম? আরে শেখ হাসিনা তো অনেক ওপরের বিষয়। আজ সারাদেশে যুবলীগের সঙ্গে লইড়া দেখেন। আসেন, দেখেন, খেলা হবে। এই যুবলীগের সঙ্গে এক মিনিট লড়ার ক্ষমতা আপনার নেই।’ তিনি বলেন, ‘আমাদের সাথে ফাঁপরবাজি কইরেন না। কোন দেশের টাকা খাইছেন, হঠাৎ কইরা চাঙা দিয়া উঠছেন। ওইসব দেশের দালালি বন্ধ করেন, এটা বঙ্গবন্ধুর স্বাধীন বাংলাদেশ।’

যুবলীগের সভাপতিম-লীর সদস্য নিক্সন চৌধুরী বলেন, ‘যুবলীগ যদি মাঠে নামে ওস্তাদ দৌড়াইয়া কূল পাবেন না। তাই আমার নেত্রীরে চ্যালেঞ্জ জানানোর আগে নেত্রীর সন্তানদের সঙ্গে একটু বুইঝা নেন। তাই এমন ধমক দিয়েন না। দালালি করেন অন্য দেশের। দালালি কইরা মাল খাইছেন, হেই মাল খাইয়া এহন ভাব নেন, চ্যালেঞ্জ করেন।’

‘আরে শেখ হাসিনা তো অনেক উপরের বিষয়। শুধু সারাদেশের যুবলীগের সঙ্গে লইড়া দেখেন। এই যুবলীগের সঙ্গে এক মিনিট লড়ার ক্ষমতা আপনার নাই।’

রাজধানীর ধোলাইপাড়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতা করছে ধর্মভিত্তিক বেশ কয়েকটি দল। হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হক হুমকি দিয়েছিলেন, ভাস্কর্য নির্মাণ হলে তিনি দেশে ২০১৩ সালের ৫ মে শাপলা চত্বরের মতো পরিস্থিতি আবার তৈরি করবেন।

এই বক্তব্য দেয়ার পর দেশের বিভিন্ন প্রান্তে প্রতিরোধের মধ্যে ওয়াজ করতে পারেননি মামুনুল হক যা শীতকালে তার আয়ের একটি বড় অংশ। গত বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামে ছাত্রলীগ-যুবলীগের নেতা-কর্মীরা তাকে প্রতিহতের ঘোষণা দিয়ে রাজপথে নামে। আর এই অবস্থায় তিনি শুক্রবার হাটহাজারীর আলোচিত মাহফিলে যোগ দেননি।

এই প্রতিরোধের মুখে পড়া মামুনুল রোববার সংবাদ সম্মেলনে এসে সুর নরম করেছেন। বলেছেন, ভুল তথ্য প্রচার করে তাকে প্রশাসনের মুখোমুখি করার চেষ্টা করা হচ্ছে। তিনি ভাস্কর্যের বিরোধী হলেও এ নিয়ে কোনো ‘যুদ্ধে যাবেন না’।

তবে ভবিষ্যতে ক্ষমতা হলে সব ভাস্কর্য ভেঙে ফেলা হবে বলেও জানান হেফাজত নেতা।

মামুনুলকে হককে হুমকি না দেয়ার পরামর্শ দিয়ে নিক্সন চৌধুরী বলেন, ‘আমাদের সাথে ফাঁপরবাজি কইরেন না। কোন দেশের টাকা খাইছেন, হঠাৎ কইরা চাঙ্গা দিয়া উঠছেন। ওইসব দেশের দালালি বন্ধ করেন, এটা বঙ্গবন্ধুর স্বাধীন বাংলাদেশ।

‘যুবলীগ যদি মাঠে নামে ওস্তাদ দৌড়াইয়া কূল-কিনারা পাবেন না। তাই আমার নেত্রীরে চ্যালেঞ্জ জানানোর আগে নেত্রীর সন্তানদের সঙ্গে একটু বুইঝা নেন। এমন ধমক দিয়েন না।’