নিজেদের দেওয়া নিষেধাজ্ঞা অমান্য করছে রাবি প্রশাসন!

মুজাহিদ হোসেন মুজাহিদ হোসেন

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৬:৪৭ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯ | আপডেট: ৬:৪৭:অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯

নিজেদের দেওয়া নিষেধাজ্ঞা অমান্য করার অভিযোগ উঠেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের বিরুদ্ধে। একাডেমিক সময়ে মাইকিং ও সাউন্ড বক্স বাঁজানোর নিষেধাজ্ঞা থাকলেও তা অমান্য করে আজ বৃহস্পতিবার (১২ডিসেম্বর) দুপুর ১২টায় মাইকিং করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, সৈয়দ নজরুল ইসলাম প্রশাসনিক ভবনের সামনে মাইকিং করা শুরু হয়ে ক্যাম্পাসের প্রধান সড়কগুলো দিয়ে মাইকিং করা হয়৷

পরবর্তী সৈয়দ ইসমাইল হোসেন সিরাজী একাডেমিক ভবনের সামনে গিয়ে ৫ মিনিট অবস্থান করে। সেই সময়ে ভবনের মধ্যে পরীক্ষা চলছিল নৃবিজ্ঞান এবং ফোকলোর বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীদের। এছাড়াও একই সময় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ভবনে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষাও চলছিল। এতে করে বিড়ম্বনায় পড়ে হলে গার্ড দেয়া শিক্ষক এবং হলে অবস্থানরত পরীক্ষার্থীরা।

সমস্যার কথা জানিয়ে পরীক্ষায় অবস্থানরত গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী রাশেদুল ইসলাম বলেন, পরীক্ষা চলাকালীন সময় আজ বিশ্ববিদ্যাল প্রশাসনের পক্ষ থেকে উচ্চ শব্দে মাইকিং করা হয়েছে। এতে করে পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী সকল শিক্ষার্থীদের ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে। এর আগে প্রশাসন এ বিষয়ে কড়াকড়ি নিয়ম করলেও এর কোন কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে দেখা যায় নি। আমরা চাই এধরণের সমস্যা নিরসনে প্রশাসন আরও কঠোর হোক।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ফোকলোর বিভাগের এক সহকারী অধ্যাপক বলেন, প্রশাসন নির্দেশ দিয়ে যদি প্রশাসনই এটার সদ্য ব্যবহার না করে তাহলে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে এটা আশা করা একদমই বোকামি হবে বলে আমি মনে করি।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান বলেন, আসন্ন ১৬ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে ওইদিনের কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত করতে মাইকিং করা হয়। তবে কোথাও দাড়িয়ে অবস্থান করে মাইকিং করতে নিষেধ করা হয়েছিলো। এখন তারা যদি কোন স্থানে অবস্থান করে মাইকিং করে তাহলে এটা তারা ঠীক করেনি।