নিবন্ধিত শিক্ষক ব্যতীত পাঠদানের অনুমতি নয়

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:০১ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২৯, ২০১৮ | আপডেট: ৬:০১:পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২৯, ২০১৮
নিবন্ধিত শিক্ষক ব্যতীত পাঠদানের অনুমতি নয়

বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে (স্কুল-কলেজ ও মাদরাসা) পাঠদানের অনুমতি পেতে নিবন্ধনধারী শিক্ষক নিয়োগের শর্ত যুক্ত করা হচ্ছে। সম্প্রতি বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) চেয়ারম্যান এ এমএম আজহারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

বর্তমানে নতুন স্কুল-কলেজ ও মাদরাসা প্রতিষ্ঠাকালে প্রথমে স্থাপনের অনুমতি নিতে হয়। পরে পাঠদান ও একাডেমিক স্বীকৃতি নিতে হয়। শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও শিক্ষাবোর্ড কয়েকটি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে অনুমতিগুলো দিয়ে থাকে।

অনসুন্ধানে জানা যায়, পাঠদানের অনুমতি পাওয়ার আগে প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়েগের ক্ষেত্রে সরকার প্রণীত কোনো বিধান মানা হয় না। অথচ ২০০৫ সালে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) প্রতিষ্ঠা এবং এ সংক্রান্ত আইন চালুর সময় থেকেই যে কোনো বেসরকারি স্কুল-কলেজ ও মাদরাসায় শিক্ষক নিয়োগের প্রাক-যোগ্যতা হিসেবে নিবন্ধন সনদ বাধ্যতামূলক করা হয়। কিন্তু শুধু এমপিওভুক্তি ছাড়া এই বিধান কেউ মানেন না।

এমনকি শিক্ষা বোর্ড ও শিক্ষা অধিদপ্তরে নিযুক্ত অনেক বিসিএস সাধারণ শিক্ষা ক্যাডারভুক্ত সরকারি কলেজ ও হাইস্কুল শিক্ষকদের এ বিধানটি সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা নেই। শিক্ষা ক্যাডারভুক্ত জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদেরও এ সম্পর্কে ধারণা অস্পষ্ট।

সংশ্লিষ্টরা মনে করেন, শুধু এমপিওভুক্তির ক্ষেত্রে নিবন্ধন সনদ। এই সুযোগে প্রতিবছর হাজার হাজার নিবন্ধনবিহীন ব্যক্তি শিক্ষকতা পেশায় ঢুকে পড়ছেন। শ্রেণিকক্ষে পাঠদান করছেন। এতে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা।

এ প্রসঙ্গে এনটিআরসিএর একজন কর্মকর্তা বলেন, গত ২৯ জুলাই কর্তৃপক্ষের এক সভায় সিদ্ধান্ত হয় যে, এনটিআরসিএ কর্তৃক শিক্ষক নিয়োগ দিতে হবে এমন শর্ত সাপেক্ষে পাঠদানের অনুমতি দেয়ার প্রথা চালু করতে হবে। সিদ্ধান্তটি বাস্তবায়নের জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন পেলেই প্রজ্ঞাপন জারি হবে।