নির্বাচনের আগে সেন্টমার্টিনে পর্যটক ভ্রমণ নিষিদ্ধ

প্রকাশিত: ৬:০৫ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৩, ২০১৮ | আপডেট: ৬:০৫:অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৩, ২০১৮
সেন্ট মার্টি দ্বীপ। ছবি: সংগৃহীত

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ইস্যুতে কক্সবাজারের প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিন ভ্রমণ নিষিদ্ধ করেছে প্রশাসন। পাশাপাশি কক্সবাজারের টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌ-রুটে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল বন্ধ থাকবে ৪ দিন।

আগামী ২৮ ডিসেম্বর থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আশরাফুল আফসার।

তিনি বলেন, নির্বাচনের সময় নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে ২৩ ডিসেম্বর শনিবার এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে আরও আলোচনা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানান তিনি। তবে প্রাথমিকভাবে উপরে উল্লেখিত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন রয়েছে বলেও নিশ্চিত করেন।

জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ রবিউল হাসান বলেন, নির্বাচনের সময় নিরপত্তার কথা চিন্তা করে ২৮ ডিসেম্বর থেকে ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত টেকনাফ-সেন্টমার্টিন রুটে পর্যটকবাহী জাহাজগুলো চলাচল বন্ধ করে দেয়া হবে। এই চার দিন জাহাজ চলাচল বন্ধ থাকবে।

সেন্টমার্টিন আবাসিক হোটেল মালিক সমিতির সভাপতি মুজিবুর রহমান বলেন, খবরটি ইতিমধ্যে প্রশসনের পক্ষ থেকে আমরা পেয়েছি। মৌসুমে সামান্য ক্ষতি হলেও রাষ্ট্রীয় সুবিধার কথা মাথায় রেখে বিষয়টিকে গুরুত্ব দেয়া দরকার। কারণ কোনো বিষয়কে বর্তমানে ছোট করে দেখার সুযোগ নেই। সুতারাং এটি অবশ্যই ভাল উদ্যোগ।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) টেকনাফ অঞ্চলের পরির্দশক (পরিবহন) মোহাম্মদ হোসেন বলেন, নির্বাচনকে সামনে রেখে ৪ দিনের জন্য টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌ-রুটে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল বন্ধ রাখা হবে। ইতিমধ্যে প্রশাসন থেকে এই বিষয়ে ম্যাসেজ এসেছে।

স্থানীয়দের মতে, বর্তমানে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌ-রুটে ৬টি জাহাজ চলাচল করছে। সেগুলো হচ্ছে- জামায়াতের মীর কাশেম আলীর মালিকানাধীন কেয়ারি সিন্দাবাদ, কেয়ারি ক্রুজ অ্যান্ড ডাইন। অন্য চারটি হল বে-ক্রুস, এলসিটি কাজল, এমভি ফারহান ও গ্রীন লাইন।