নয়নকে বলেছিলাম, মিন্নি ভালো না, ওরে বিয়ে করিস না : নয়নের মা

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:১০ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৩, ২০১৯ | আপডেট: ১১:১০:অপরাহ্ণ, জুলাই ২৩, ২০১৯
ছবিঃ সংগৃহিত

বরগুনা সরকারি কলেজের মূল ফটকের সামনের রাস্তায় ২৬ জুন সকাল ১০টার দিকে স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির সামনে কুপিয়ে জখম করা হয় রিফাত শরীফকে।

বিকাল ৪টায় বরিশালের শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। মামলার এজাহারভুক্ত ছয় আসামিসহ এ পর্যন্ত ১৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৪ জনই স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

বরগুনায় আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান আসামি বন্দুকযদ্ধে নিহত নয়ন বন্ডের মা শাহিদা বেগম বলেছেন, ‘নয়ন মিন্নিকে বিয়ে করতে চেয়েছিল। কিন্তু আমি রাজি হইনি। পরে শুনেছি, তারা নিজেরাই বিয়ে করেছে। আমি নয়নকে বলেছিলাম, মিন্নি ভালো না, ওরে বিয়ে করিস না।

আজ রোববার (২২ জুলাই) বিকালে নিহত সাব্বির আহমেদ নয়নের (নয়ন বন্ড) মা সাংবাদিকদের করা এক প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন।

শাহিদা বেগম বলেন, ‘আমার ছেলে দোষী, এটা আমি জানি। কিন্তু সে তো একদিনে নয়ন বন্ড তৈরি হয়নি। তাকে তৈরি করা হয়েছে। প্রভাবশালী মহল তাকে ব্যবহার করার জন্য নয়ন বন্ড হিসেবে তৈরি করেছে।’

তিনি আরো বলেন, ছেলের মাদক ব্যবসায়ী হয়ে ওঠা থেকে শুরু করে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হওয়ার জন্য প্রভাবশালী মহল দায়ী। কোন প্রভাবশালী মহল জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘তা ঠিক বলতে পারবো না। তবে আমার ছেলেকে হত্যা করা হয়েছে। কারণ, তার মুখ থেকে যদি প্রভাবশালী মহলের সব অপকর্মের ঘটনা ফাঁস হয়ে যায়, সেই জন্যই।’

নয়নের মা বলেন, ‘আমার ছেলের বাপ নাই, তাই ওরে মাইরা ফ্যালা হইছে। যাতে আসল রহস্য আড়াল করা যায়। আমার ছেলে তো খুনি ছিল না। সে মাদকসেবী ছিল। নিশ্চয়ই এর পেছনে অন্য কোনও কারণ আছে।’

আক্ষেপ প্রকাশ করে নয়নের মা বলেন, আমার ছেলে ভালো ছাত্র ছিল। কিন্তু ক্লাস টেন থেকে আস্তে আস্তে মাদকের জগতে প্রবেশ করে। কে হ্যারে বন্ড বানাইলো, জিরো জিরো সেভেন বানাইলো, তোমরা খুঁইজা বের করো। এর আগে নয়ন বন্ড ১২ লাখ টাকাসহ ধরা পড়েছিল। সে এত টাকা কোথায় পাইলো? কে দিলো? তোমরা খুঁইজা বের করো।’

এদিকে নয়নের মায়ের মিন্নিকে বিয়ে প্রসঙ্গে বক্তব্যের জবাবে মিন্নির বাবা প্রশ্ন তোলে বলেন, ‘নয়ন বন্ডের সঙ্গে যদি আমার মেয়ের বিবাহ হয়, তাহলে যেদিন আমার মেয়ের আনুষ্ঠানিক বিবাহ দিলাম সেদিন তারা কোথায় ছিল? শত শত লোক খাওয়াইলাম তারা তখন এ বিষয়ে কথা বলেনি কেন?’