পটিয়ায় অসুস্থ কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিল যুবলীগ

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:৩৮ অপরাহ্ণ, মে ৭, ২০২১ | আপডেট: ৯:৩৮:অপরাহ্ণ, মে ৭, ২০২১

কাউছার আলম, পটিয়া (চট্রগ্রাম) প্রতিনিধি: চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার বিস্তীর্ন মাঠ জুড়েই এখন বোরো ধানের ক্ষেত। শ্রমিক সংকটের কারণে বিপাকে পড়েছেন কৃষকরা। ওইসব বিপদগ্রস্থ কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছে উপজেলা যুবলীগের নেতাকর্মীরা।

শুক্রবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত প্রখর রোদে উপজেলার বড়লিয়া ইউনিয়নের ৭ নং ওয়াডের সৈয়দ পাড়া গ্রামের অসহায় অসুস্হ কৃষক জামাল উদ্দিনের ৫ বিঘা জমির বোরো ধান কেটে বাড়িতে পৌঁছে দিয়েছে যুবলীগের নেতাকর্মীরা।

পটিয়া উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক হাসান উল্লাহ চৌধুরী ও যুগ্ম আহবায়ক ইমরান উদ্দিন বশিরের নেতৃত্বে যুবলীগ নেতা দিদারুল আলম, জাহিদুল ইসলাম, মহিউদ্দিন বাদশা, নুরুল আমিন, জুয়েল, ইউসুফ, শওকত আলী, রায়হান, নাজমুল ইসলাম (বাচা), সাইফুল ইসলাম, সাহাদাত হোসেন, জুবায়ের হোসেন, বোরহান উদ্দিন এবং বড়লিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী যুব লীগের নেতা কর্মীরা সহ প্রায় ৩০ জন নেতাকর্মী বোরো ধান কাটায় অংশগ্রহণ করে।

জানা যায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ও আওয়ামী যুব লীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মাঈনুল হোসেন খান নিখিলের আহবানে এবং হুইপ শামসুল হক চৌধুরীর অনুপ্রেরনায় পটিয়া উপজেলা আওয়ামী যুব লীগের আহবায়ক হাসান উল্লাহ চৌধুরী ও যুগ্ম আহবায়ক ইমরান উদ্দিন বশিরের নেতৃত্বে উপজেলা পর্যায়ে পটিয়ার অসহায় দরিদ্র কৃষকের পাকা ধান কেটে ঘরে তুলে দেয়ার কার্যক্রম আজ হতে শুরু করেছেন।

কৃষক জামাল উদ্দিন বলেন, আমি দীর্ঘ দিন ধরে অসুস্থ আমার পাকা ধান কাটার লোক পাওয়া যায় না, একজন লোক ঠিক করতে অনেক টাকা লাগে। এতো টাকা খরচ করে ধান কাটা সম্ভব নয়।

তিনি আরো জানান, এ বছর বোরো চাষের জন্য আবহাওয়া মোটেও অনুকূলে ছিল না। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত কোন বৃষ্টির দেখা মেলেলি। পুরো মৌসুম জুড়ে পুকুর,খাল আর বিলের পানির উপর নির্ভর করতে হয়েছে। এরপর ক্ষেতের ধান পেকে যায়। দেশে করোনার কারণে ক্ষেতের ধান কাটার জন্য শ্রমিক না পাওয়ায় তিনি দুশ্চিন্তায় পড়েন। পরে শুক্রবার সকালে পটিয়া উপজেলা যুবলীগের নেতাকর্মীরা আমার ক্ষেতের ধান কেটে বাড়ির উঠানে পৌঁছে দিয়েছেন। এই অবস্থায় উপজেলা যুবলীগের নেতাকর্মীরা আমার ধান কেটে দিয়েছেন এতে আমি খুশি হয়েছি। আমি উপজেলা যুবলীগের নেতাকর্মীদের ধন্যবাদ জানাই। উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক হাসান উল্লাহ চৌধুরী বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ও কেন্দ্রীয় যুবলীগের চেয়ারম্যান ও সাধারণ সম্পাদক এবং হুইপ মহোদয়ের অনুপ্রেরণায় লকডাউনের কারণে নেতাকর্মীদেরকে অসহায় মানুষের পাশে থাকতে বলেছেন। তাই আমরা আজকে একজন অসহায় কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিয়েছি। আমরা যুবলীগ অসহায় মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা করবো ইনশাল্লাহ।

যুগ্ম আহবায়ক ইমরান উদ্দিন বশির বলেন, পটিয়ার মাঠে দুলছে সোনালি ধান। লকডাউনে শ্রমিক সংকটের কারণে ধান কাটতে পারছেন না কৃষক। ওই সব কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছেন যুবলীগের নেতাকর্মীরা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় কেন্দ্রীয় যুবলীগের আহ্বানে সাড়া দিয়ে অসহায় কৃষকের জমির ধান কেটে দিয়েছি আমরা । রোজা রেখে এমন একটা ভালো কাজ করতে পেরে খুব ভালো লাগছে। এভাবে আমারা উপজেলার প্রতিটা ইউনিয়নে কৃষকদের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিব।