পটিয়ায় বৌদ্ধ ধর্ম গুরুর জাতীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

অসাম্প্রদায়িক চেতনার চারন ভূমি পটিয়া

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:২৫ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২১ | আপডেট: ৯:২৫:অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২১

কাউছার আলম, পটিয়া (চট্রগ্রাম)প্রতিনিধি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, এটা বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ তার মৃত্যুর পর গোটা দেশ পথহারা প্রতিকের মতো হয়ে গিয়েছিল। তার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আজ বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধুর চেতনায় এগিয়ে গিয়ে অসাম্প্রদায়িক চেতনার বাংলাদেশ হিসেবে সারা বিশ্বে দৃষ্টান্ত স্হাপন করেছেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা বিশ্বাস করি অসাম্প্রদায়িক চেতনায় যুগে যুগে মহাপুরুষরা জন্মগ্রহণ করেছেন। ঠিক তেমনি বীর পটিয়ায় বাংলাদেশের বৌদ্ধ ধর্মের ১২ তম প্রধান ধর্ম গুরু ড. ধর্মসেন মহাস্হবিরের জন্ম পটিয়ার উনাইনপুরা গ্রামে। তিনি ছাড়া ও আরো অনেক মনিষী এ পটিয়ায় জন্মগ্রহণ করেছেন।

এসময় আসাদুজ্জামান খান কামাল আরো বলেন, আজ পটিয়ায় এসে অনুধাবন করতে পেরেছি এবং স্বচোক্ষে দেখেছি এ পটিয়া অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী তা না হলে এরকম একটা ধর্ম গুরুর জাতীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠানে ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সবাই বেধা বেদ ভুলে একসাথে এসে জড়ো হয়েছেন যা বাংলাদেশের ইতিহাসের পাতায় স্বর্নালী অক্ষরে লিখা থাকবে।
তিনি বলেন, বৌদ্ধরাও বাংলাদেশের অধিবাসী এদেশের মাঠির সাথে মিশে আছে তাদের মৈত্রী ও মানবতার জয়গান।

তিনি প্রয়াত ড. ধর্মসেন মহাস্থবিরের আর্দশকে ধারন করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ বিনির্মানে সবাই মিলে অসাম্প্রদায়িক চেতনার সোনার বাংলাদেশ গড়ার আহবান জানান।
শুক্রবার বিকেল চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার জঙ্গলখাইন ইউনিয়নের উনাইনপুরা গ্রামে বাংলাদেশের বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মগুরু ড. ধর্মসেন মহাস্থবিরের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠানের ২য় ও শেষ দিনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বৌদ্ধধর্মাবলম্বীদের নব নিযুক্ত ১৩ তম ধর্ম গুরু ড. জ্ঞানশ্রী মহাস্থবিরের সভাপতিত্বে অনুষ্টিত অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া পূর্ব সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পটিয়ার সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের হুইপ শামসুল হক চৌধুরী এমপি, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক ব্যারিষ্টার বিপ্লব বড়ুয়া।

এসময় আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ খ্রীষ্টান এসোসিয়েশনের সভাপতি নির্মল রোজারিও, মাওলানা মাজহারুল ইসলাম, ড. সংঘ প্রিয় মহাথের, পটিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী, কেন্দ্রীয় যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বদিউল আলম, অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া উদযাপন অনুষ্ঠানের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক প্রনব বড়ুয়া অর্ণব, অজিত রঞ্জন বড়ুয়া।

আরো উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মমিনুর রহমান, পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি আনোয়ার হোসেন, চট্টগ্রাম পুলিশ কমিশনার সালেহ উদ্দিন, চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার এস এম রশিদুল হক, পটিয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারিক রহমান, লিটন বড়ুয়া প্রমুখ।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ২১ শে মার্চ বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মগুরু ড. ধর্মসেন মহাস্থবির মারা যান। তার মৃত্যুর ৩৪৩ দিন পর দুইদিন ব্যাপি জাতীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠানের মহা উৎসবের মধ্যদিয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার উনাইনপুরা এলাকায় তার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন হয়।

এদিকে ১২ তম এ বৌদ্ধ ধর্ম গুরুর মৃত্যুর পর রীতি অনুযায়ী অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠানের আগের দিন গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে সারাদেশের ২০৩ জন বৌদ্ধ ভিক্ষুর উপস্থিতিতে সারা দেশের বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের ১৩ তম ধর্ম গুরু নির্বাচিত হন ড. জ্ঞানশ্রী মহাস্থবির।