পথ হারিয়ে নিখোঁজ ২৫০ হাজি!

প্রকাশিত: ১২:৪১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২২, ২০১৮ | আপডেট: ১২:৪১:অপরাহ্ণ, আগস্ট ২২, ২০১৮

পবিত্র হজ পালন করতে এসে পথ হারিয়ে নিখোঁজ হয়েছেন কমপক্ষে ২৫০ জন হাজি। মক্কা থেকে আরাফা, মুজদালিফা ও মিনাতে যাওয়ার সময় এসব হাজিরা নিখোঁজ হন।

গতকাল মঙ্গলবার রাত ১২টায় মিনায় বাংলাদেশ হজ অফিসের একজন কর্মকর্তা এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, দূতাবাসে বিভিন্ন সূত্রে হাজিদের হারানোর তথ্যে পেয়ে তাদেরকে দ্রুত হজ অফিসে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করা হয়। তবে ঠিক কতজন হাজি ফিরেছেন আর কতজন এখনও ফিরেননি তার সঠিক সংখ্যা তাৎক্ষণিকভাবে জানাতে পারেননি তিনি।

আরাফা, মুজদালিফা ও মিনায় ঘুরে দেখা গেছে বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের তাবুর রাস্তাগুলো দেখতে প্রায় একই রকম। ফলে কখনও রাস্তা কখনও তাবু হারিয়ে ফেলছেন হাজিরা। আরাফার ময়দানে যে মসজিদ থেকে বয়ান হয় সে মসজিদে নামাজ পড়তে গিয়ে অনেকে পথ হারিয়ে দিশেহারা হয়েছেন। বিশেষ করে বয়োবৃদ্ধরা পথ ভুল করছেন বেশি। অচেনা দেশ, পথ ও অপরিচিত ভাষা ইত্যাদি কারণে অনেকেই পথ হারিয়ে কান্নাকাটিও করছেন।

মনির নামে একজন হাজি জানান, মোজদালিফাতে বাথরুমে গিয়ে তিনি পথ হারিয়ে ফেলেন। আশেপাশের বাথরুমগুলো হুবুহু একই রকম দেখতে। ফলে তিনি বিভ্রান্ত হন। মক্কা থেকে মিনার তাবুতে যেতে হজ মৌসুমে বাদশা ফাহাদ ব্রিজের কাছে নামিয়ে দেয়া হয়। এ সময় অনেকে দিক ভুলে এদিক-সেদিক মতো ঘুরতে থাকেন।

ভুক্তভোগিরা জানান, অন্যান্য দেশ বিশেষ করে ভারতের স্বেচ্ছাসেবকরা যেমন কাকডাকা ভোর থেকে যেভাবে হারিয়ে যাওয়া হাজিদের খুঁজে বের করছেন বাংলাদেশের স্বেচ্ছাসেবকদের তেমনটা করতে দেখা যায় না।

তবে বাংলাদেশ হজ অফিস সূত্রে জানা গেছে তাদের প্রায় দুইশ স্বেচ্ছাসেবক রয়েছেন। তারা জানান, এবার বাংলাদেশের মোট হজযাত্রী ১ লাখ ২৭ হাজারেরও বেশি। এত বিপুল সংখ্যক লোকের জন্য পর্যাপ্ত স্বেচ্ছাসেবক নেই। তবে তারা সীমিত সংখ্যক স্বেচ্ছাসেবক দিয়ে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে দাবি করেন।